অক্ষয় তৃতীয়ার দিন এই শুভ জিনিসগুলো বাড়িতে নিয়ে আসুন, আপনার উন্নতি অনিবার্য

নিজস্ব প্রতিবেদন: হিন্দু ধর্মে অক্ষয় তৃতীয়ার দিনটিকে অত্যন্ত শুভ মনে করা হয়। হিন্দু পঞ্জিকা অনুযায়ী বৈশাখ মাসের শুক্লপক্ষের তৃতীয়ার দিনে অক্ষয় তৃতীয়া পালন করা হয়। অক্ষয় তৃতীয়া পাপ নাশকারী এবং সুখ প্রদানকারী একটি তিথি হিসেবে গ্রাহ্য করা হয়। চলুন জেনে নেওয়া যাক অক্ষয় তৃতীয়ার তিথি

অক্ষয় তৃতীয়ার তিথি: এই বছর ১৪ মে অক্ষয় তৃতীয়া পালন করা হবে। অক্ষয় তৃতীয়া শুরু ১৪ মে ২০২১ সকাল ৫টা ৩৮ মিনিট। অক্ষয় তৃতীয়া শেষ হবে ১৫ মে সকাল ৭টা ৫৯ মিনিট। পুজো করার শুভক্ষণ হল সকাল ৫টা ৩৮ মিনিট থেকে দুপুর ১২টা ১৮ পর্যন্ত।

প্রাচীনকাল থেকেই বৈশাখ মাসের শুক্লপক্ষের তৃতীয় দিন শুভ ধরা হয় অর্থাৎ এই দিনটিকে অক্ষয় তৃতীয়া বলা হয়। প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও এই অক্ষয় তৃতীয়ার দিনে শুরু হয় জগন্নাথ বলরাম সুভদ্রার নতুন রথ তৈরি। জেনে নেওয়া যাক কেন এই দিনটি বিশেষ দিন? কি তার মাহাত্ম্য? পুরান মতে বিষ্ণুদেবের ষষ্ঠ অবতার হলো পরশুরাম, এই দিনটি পরশুরামের জন্মদিন হিসেবে পালন করা হয়, এছাড়াও মহাকবি ব্যাসদেব প্রথম মহাভারত লেখা শুরু করেন এই দিনে। জৈন সাধু তীর্থংকর ঋষভনাথ এই দিনে উপবাস ভঙ্গ করেন। আরো শোনা যায় প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী রাজা ভগীরথ গঙ্গাকে মর্ত্যে এনেছিলেন এই দিনে।

সোনা: অক্ষয় শব্দের অর্থ যার কোন ক্ষয় নেই অর্থাৎ যে জিনিসের বিনষ্ট হয় না, তাই এই দিনে ধন সম্পদ কিনলে তা অক্ষয় হয়, আবার অনেকে মনে করেন এই দিনে কোন শুভ কাজ করলে তার ফল অনন্তকাল থাকে। অনেকেই এই দিনে দান করেন, এছাড়াও এই দিনে অনেক ব্যবসায়ীরা হালখাতা ও করেন আসলে এই দিন কুবের লক্ষ্মী দেবীকে পুজো করেছিলেন বলে কথিত আছে।

লক্ষীর পাদুকা ও বাঁশি:  লক্ষ্মীর পায়ের চিহ্ন হিসেবে তার পাদুকা বাড়িতে আনা খুব শুভ বলে মনে করা হয়। সোনা অথবা রুপোর পাদুকা যদি বাড়িতে রাখেন, তাহলে মায়ের আশীর্বাদ আপনার ওপর সদা বর্ষণ হবে। ঈশান কোণে একটি বাঁশি ও রেখে দিতে পারেন।

কচ্ছপ,কড়ি ও মাটির কলসি: এইদিন বাড়ির ঈশান কোনে যদি কচ্ছপের মূর্তি রাখতে পারেন, তাহলে আপনার ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত হয়ে যাবে। নবরত্নের মূর্তি সবথেকে বেশি শুভ বলে মনে করা হয়। আবার স্ফটিক দ্বারা নির্মিত কচ্ছপের মূর্তি ও কিনতে পারেন। লক্ষ্মী দেবীর আটটি অবতার কে খুব জাগ্রত মনে করা হয়। তাই তার প্রতীক হিসাবে আপনি বাড়িতে আনতে পারেন কড়ি। এই দিনে আটখানি হলুদ কড়ি এনে ঈশান কোণে রেখে দিন। একটি মাটির কলসি কিনে এনে ঈশান কোণে রেখে দিন। সারা জীবন আপনার হাসি খুশি এবং সুখ-সমৃদ্ধিতে কেটে যাবে।

Back to top button