আপনার কাছে ট্রাক্টরের ছবি দেওয়া পুরোনো ৫ টাকার নোট আছে, বিক্রি করলে পেতে পারেন ৩০ হাজার টাকা!

নিজস্ব প্রতিবেদন: পুরনো জিনিস আমাদেরকে সব সময় আনন্দ দিয়ে থাকে এবং লাভবান করতে পারে। মাঝে মাঝে আবার পুরনো দিন গুলোর কথাও মনে করিয়ে দেয়। পুরনো স্মৃতি মনে পড়ে বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে আমরা সেই সময় কাটিয়ে আসা দিনগুলোকে ভীষণভাবে মিস করি।

অনেকের আবার পুরনো জিনিস জমানোর প্রতি প্রবল আগ্রহ দেখা যায়। সেটি কোনো পুরনো জামা কাপড় হতে পারে, পুরোনো জিনিসপত্র হতে পারে, পুরোনো খেলনা হতে পারে আবার পুরনো নোট বা কয়েনও হতে পারে। এগুলো হতে পারে স্বাধীনতার পরে ভারত সরকার দ্বারা প্রচলিত কোনো পুরনো নোট বা কয়েন কিংবা হতে পারে স্বাধীনতার আগে ইংরেজদের আমলে প্রচলিত কোন নোট বা কয়েন ।

সেই সমস্ত লোকেদের জন্য আছে একটা সুখবর। কারণ পরে সেই সমস্ত নোট বা কয়েনগুলি আন্তর্জাতিক বাজারে ব্যাপক চাহিদা হয়। যেমন এক যুবক একটা পুরনো ১০০ টাকার নোট বিক্রি করে লাখোপতি হয়ে গিয়েছিল রাতারাতি। যদি আপনার বাড়িতে পুরনো পাঁচ টাকার নোট থেকে থাকে তাহলে সেটা আপনি ই-কমার্স সাইটে নিলামে তুলিয়ে কয়েক হাজার টাকা পেতে পারেন। তবে ওই পুরনো পাঁচ টাকার নোটে ট্রাক্টরের ছবি থাকতে হবে এবং ৭৮৬ নাম্বার লেখাটা থাকা বাঞ্ছনীয় ।

এই ধরনের নোটকে আরবিয়াই বিরল নোট হিসেবে চিহ্নিত করেছে। এই নোটের মূল্য আন্তর্জাতিক বাজারের অনেক। আপনি এই পাঁচ টাকার নোট একটা বিক্রি করে মুহূর্তের মধ্যে ৩০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন। আপনাকে শুধু coinbazar.com ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজের একটা একাউন্ট খুলতে হবে এবং সেখানে গিয়ে ওই পুরোনো 5 টাকার নোটটি নিলামে তুলতে পারলেই কেল্লা ফতে।

আজই বাড়িতে গিয়ে চিরুনি তল্লাশি চালান এবং খুঁজে বের করুন পুরানো ৫ টাকার নোট। এছাড়া আর একটা খবর জানা গিয়েছে আপনার কাছে যদি পুরনো যুগের অর্থাৎ ১৯৭৭-৭৮ সালের পরের এক টাকার নোট থাকে তাহলে আপনি পেয়ে যাবেন ৪৫ হাজার টাকা। কথাটি অবাস্তব শোনালেও কথাটির মধ্যে অনেকখানি বাস্তবতা রয়েছে। তাহলে আর দেরি কেন, এক্ষনি খোজ শুরু করে দিন।

Back to top button