উকিল নিয়ে বউ, ওষুধ নিয়ে বান্ধবী! শোভন-ভাগ্যে ঈর্ষাকাতর বঙ্গ নেটিজেনকুল

নিজস্ব প্রতিবেদনশোভন, রত্না এবং বৈশাখীর চিকন সম্পর্ক এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় সবথেকে চর্চিত বিষয়। স্বামীকে সিবিআই গ্রেফতার করায় যেভাবে উকিল নিয়ে ছুটে গিয়েছেন শোভন-এর স্ত্রী রত্না, তা দেখে নেটিজেনরা মজা করে লিখেছে,”এরপর যদি পেয়ে যাও জামিন,কেটে যায় জেলের ভয়। মনে রেখো বউ ছিল পাশে। সুন্দরী বান্ধবী নয়।”

গত তিন বছরে সফলতা এবং বৈশাখীর ত্রিকোণ সম্পর্ক অনেক বার সামনে এসেছে তার প্রধান কারণগুলো হলো- সুমনের মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা, বিজেপিতে যোগদান, ইত্যাদি। আর সম্প্রতি ঘটল অন্য একটি ঘটনা। সোমবার সিবিআই শোভনকে গ্রেফতার করলে উকিল দিয়ে ছুটে যায় তার স্ত্রী রত্না। রত্নার বক্তব্য,” শোভন আমার স্বামী স্ত্রী হিসেবে আমার কর্তব্য সবসময় ওঁর পাশে থাকার।”

নিজাম ফেলেছে মায়ের সঙ্গে আছে তাদের পুত্র ঋষিও। রত্না সিবিআই নথিতে স্বাক্ষর করেছেন তার স্বামীকে গ্রেপ্তারের পর। অনবরত যোগাযোগ রেখে যাচ্ছিলেন তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে। স্ত্রী তাকে বাঁচানোর জন্য গেলেও যাননি তার বান্ধবী বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়। যা দেখে মশকরা করে নেট বাসি বলছে,“এরপর যদি পেয়ে যাও জামিন, কেটে যায় জেলের ভয়। মনে রেখো বউ ছিল পাশে। সুন্দরী বান্ধবী নয়।”

সেদিন সন্ধ্যেবেলা মা বাড়ি ফিরলেও থেকে যান ঋষি। ঋষি সোমবার পালন করলেন আদর্শ পুত্রের কর্তব্য। সোমবার রাত্রে সুমনকে নিয়ে যাওয়া হয় প্রেসিডেন্সিতে। সেদিন রাতেই বৈশাখী পৌঁছে যান প্রেসিডেন্সি জেল চত্বরে। ছেলের সামনে কান্নাকাটি জুড়ে দেন তিনি, তার বক্তব্য,” একবার দেখতে দিন। ওষুধটুকু দিতে দিন।” নেটিজেনদের একাংশ শোভনের ভাগ্য দেখে তো রীতিমতো ঈর্ষান্বিত। কেউ কেউ আবার মশকরা করে বলছে,” বউ নিয়ে যাচ্ছে উকিল, বান্ধবী ওষুধ, এটাই পুরুষের অচ্ছে দিন।”

Back to top button