কবে থেকে চলবে লোকাল ট্রেন? কী জানাল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: বুধবার থেকে কলকাতার কিছু কিছু জায়গায় শিয়ালদা, বারুইপুর, সোনারপুর, মল্লিকপুর প্রভৃতি জায়গায় লোকাল ট্রেন চলাচল নিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন সাধারণ মানুষ। বেশি সমস্যা তৈরি হচ্ছে শিয়ালদা সাউথ সেকশনে। পুলিশের উপর রেগে গিয়ে স্থানীয় জনতা ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। তবে ওনাদের কথা মাথায় রেখেও মুখ্যমন্ত্রী এখনই ট্রেন চলাচলের ক্ষেত্রে অনুমতি দিতে পারছেন না।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “প্ররোচনা দেবেন না আমরা তো সব খুলে রেখেছি প্রায়। কিন্তু ট্রেন চললে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। বর্তমানে দোকানপাট সব কিছু খোলা রয়েছে। আমরা ভারতের অন্যান্য জায়গার মতো এতটা কড়াকড়ি করিনি। অন্যান্য জায়গায় তো কার্ফু থেকে শুরু করে অনেক কিছুই হয়েছে কিন্তু আমরা গণপরিবহন বন্ধ রেখে বাকি সবকিছু চালু রেখেছি। যদি এই মুহূর্তে আমরা ট্রেন চালিয়ে দিই তাহলে দুনিয়ার লোকের করোনা হয়ে যাবে।”

বৈঠকে জানা গেলো এখনই তিনি ট্রেন চলাচলের সিদ্ধান্ত ঘোষনা করলেন না। সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখেছেন তিনি। তবুও তিনি চালু করবেন না করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই। রেলকর্তৃপক্ষ মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিলেও তিনি তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবেন না।

পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার অনিক দৌলত জানিয়েছেন, ”ট্রেন চালাতে সমস্যা কোথায়? দুদিন ধরে শিয়ালদহ ডিভিশনের যা অবস্থা তাতে আর চলা যাচ্ছে না।” চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রীকে শিয়ালদা ডিভিশনের অবস্থার চিত্র দেখানো হয়েছে। ট্রেন বন্ধ থাকায় পূর্ব রেলের বিশাল পরিমাণ ক্ষতি হওয়ায় কারণে তারা অর্থনৈতিক কারণেও ট্রেন চালাতে বার বার আর্জি জানাচ্ছে।

Back to top button