বাংলায় কবে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় যশ? জানাল হাওয়া অফিস

বং ট্রেন্ডি ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’ জন্ম নিচ্ছে পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর ও উত্তর আন্দামান সাগরে। ২২ শে মে নিম্নচাপ অক্ষরেখার সৃষ্টি হতে পারে এবং ২৪ মে নাগাদ সৃষ্টি হতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, এমনটাই জানানো হয়েছে আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে। কবে আছড়ে পড়বে এই ‘যশ’?

আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, ২৬ শে মে পশ্চিমবঙ্গ উড়িষ্যা উপকূলে সন্ধ্যার দিকে পড়তে পারে এই ঘূর্ণিঝড়। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ২৫ তারিখ থেকে বৃষ্টি শুরু হবে এবং পরে তা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকবে, এমনটাই জানিয়েছে হাওয়া অফিস। ২৩ শে মে থেকে ঘন্টায় ৪৫-৬৫ কিমি বেগে ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে মধ্য বঙ্গোপসাগর ও আন্দামান সাগরে।২৩ শে মে-এর পর ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ আরও বাড়তে পারে। মুসলিমদের সম্বন্ধে যেতে নিষেধ করা হয়েছে ২৩ শে মে-এর পর। ইংলিশ মৎস্যজীবী মহাসমুদ্রে আছে তাদেরকে ২৩ শে মে সকালের মধ্যে ফিরে আসার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

নবান্ন সমস্ত প্রস্তুতি নিচ্ছে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে। বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর সহ সংশ্লিষ্ট কয়েকটি দপ্তরের কর্মীদের ছুটি বন্ধ করা হয়েছে কারণ প্রশাসন কোন ঝুঁকি নিতে চায় না। রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় সমুদ্রে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। ঘূর্ণিঝড়ের মোকাবিলায় প্রশাসনিক বন্দোবস্ত নিয়ে নবান্নে বৈঠক হয়, টেলিফোনে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়াও বৈঠকে ছিলেন স্বরাষ্ট্রসচিব, স্বাস্থ্যসচিব-সহ শীর্ষ প্রশাসনিক আধিকারিক এবং কলকাতা ও রাজ্য পুলিশের কর্তা সহ সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, উপকূলরক্ষী বাহিনী ও আবহাওয়া দফতরের কর্তারাও।

Back to top button