বিজয় মাল্য, নীরব মোদী, মেহুল চোকসির বাজেয়াপ্ত সম্পত্তির অংশ ব্যাঙ্ক ও কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জমা করলো ইডি

নিজস্ব প্রতিবেদন: আর্থিক প্রতারনায় অভিযুক্ত বিজয় মাল্য , নীরব মোদী আর মেহুল চোকসির ৯ হাজার ৩৭১ কোটি টাকার সম্পত্তি ব্যাঙ্কে ট্র্যান্সফার করা হল তা দিয়ে তিন পলাতক ব্যবসায়ীর সম্পত্তি তাঁদের প্রতারণার ফলে হওয়া লোকসানের ক্ষতিপূরণে সাহায্য করবে জানালো ইডি।

ইডি বলেছে, “PMLA অনুযায়ী বিজয় মাল্য, নীরব মোদী আর মেহুল চোকসির শুধু ১৮,১৭০,০২ কোটি সম্পত্তি বাজেয়াপ্তই করা হয়নি, আরও ৯ হাজার ৩৭১ কোটি টাকার বাজেয়াপ্ত সম্পত্তির একটি অংশ কেন্দ্র সরকার আর পিএসবিকে ট্র্যান্সফার করা হয়েছে। বিজয় মাল্য আর পিএনবি ব্যাঙ্ক জালিয়াতি মামলায় ৪০ শতাংশ টাকা পিএমএলএ অনুযায়ী বাজেয়াপ্ত করে শেয়ার বিক্রি করে উসুল করা হয়েছে।”

বন্ধ হয়ে যাওয়া কিংফিশার এয়ারলাইন্সের মালিক বিজয় মাল্য ব্রিটেন থেকে ভারতে আসার জন্য সেখানকার আদালতে মামলা লড়ছেন। যখন সিবিআই আর ইডি মামলার তদন্তে করছিল, তখন তিনি দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান ২রা মার্চ ২০১৬ সালে। এরপর ব্যাঙ্ক আইনি পদক্ষেপ নিয়ে ২০১৯ সালে বিজয় মাল্যকে পালিয়ে যাওয়া আর্থিক অপরাধী বলে ঘোষনা করে।

মেহুল চোকসি-নীরব মোদী ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার জালিয়াতি করে পালিয়ে যায়। চোকসি আপাতত ডোমিনিকায় আর নীরব মোদী ব্রিটেনের জেলে বন্দি হয়ে আছেন। একসাথে হিসাব করলে দেখা যায় তারা মোট ২২ হাজার ৫৮৫ কোটি টাকা জালিয়াতি করে পালিয়েছিল। তার ফলে সরকারি ব্যাঙ্ক অনেক বড়ো ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে।

Back to top button