এক সপ্তাহে ১,০০০ টাকা কমল সোনার দাম, সস্তা হল রুপোও

নিজস্ব প্রতিবেদন: দর কমেছে বিশ্ব বাজারে। সেই রেশ ধরে সোনা এবং রুপোর দাম কিছুটা পড়ল ভারতীয় বাজারে। বৃহস্পতিবার এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম গোল্ড ফিউচার্সের দাম ০.৫ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৮,৮৮০ টাকা এবং এক কিলোগ্রাম রুপোর দাম ০.৭ শতাংশ দাম কমে হয়েছে ৭১,৩৭৫ টাকা।

গত সেশনে সোনার দাম একই ছিল। কিন্তু এক কিলোগ্রাম রুপোর দাম বেড়েছিল ০.৯ শতাংশ। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, “ভারতীয় বাজারে এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৮,০২০ টাকায় সমর্থন পাচ্ছে। আর এক কিলোগ্রাম রুপো সমর্থন পাচ্ছে ৬৮,২০০ টাকায়। এমনিতে গত সপ্তাহে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৪৯,৭০০ টাকা পৌঁছানোর পর চলতি সপ্তাহে হলুদ ধাতুর উত্থান-পতন জারি আছে। বিশেষত বিশ্ব বাজারের নিম্নমুখী প্রবণতা ধরে কমেছে হলুদ দাম। এক সপ্তাহে ১,০০০ টাকা সস্তা হয়েছে সোনা।”

বিশ্ব বাজারে সোনার দাম পড়েছে ভালোরকম। বর্তমানে এক আউন্স স্পট গোল্ডের দাম ০.২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১,৮৮৫.২১ ডলার। বিশেষজ্ঞদের মতে, মার্কিন মুদ্রাস্ফীতি সংক্রান্ত পরিসংখ্যানের কারণে সতর্কভাবে এগিয়েছেন লগ্নিকারীরা। যে পরিসংখ্যানের উপর নির্ভর করবে মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের নীতি। এছাড়া বৃহস্পতিবার ইউরোপের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের নীতি-নির্ধারক বৈঠকও আছে। সেই জন্য সতর্ক আছেন লগ্নিকারীরা। শক্তিশালী ডলারের কারণে অন্য গ্রহীতাদের কাছে সোনার চাহিদাও কমেছে। অন্যান্য মূল্যবান ধাতুর মধ্যে রুপোর দাম কমেছে। এক আউন্স রুপোর দাম ০.২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১,১৪৭.৫৬ ডলার।

ক্যাপিটালভায়া ইনভেস্টমেন্ট অ্যাডভাইসর জানিয়েছেন, এক আউন্স সোনার দাম ১,৯১২-১,৯১৮ ডলারে বাধা পাচ্ছে। সমর্থন পাচ্ছে ১,৯০০ ডলারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, যদি এক আউন্স সোনার দাম ১,৮৪০ ডলারের নীচে পড়ে যায়, তাহলে অত্যন্ত দুর্বল হয়ে পড়বে সোনা।

Back to top button