বিশ্বের রেকর্ড পরিমাণ কমলো স্বর্ণের দাম, হুমড়ি খেয়ে কিনছে ক্রেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিশ্ব বাজারে স্বর্ণের দাম পতন হয়েছিল গত সপ্তাহে। গত সাত মাসের মধ্যে এবার সর্বনিম্ন পর্যায়ে চলে গিয়েছে স্বর্ণের দাম। অপরিশোধিত তেল এবং রুপার দামও কমেছে স্বর্ণের সঙ্গে সঙ্গেও। ২.১৪% হারে স্বর্ণের দাম কমেছিল গত সপ্তাহে। যেখানে পরিশোধিত তেলের দাম কমে ছিল ০.৮৭% এবং রুপার দাম কমেছিল ০.৩০%। তবে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম বেড়েছে ০.৩৭%।

করোনাভাইরাস এর মহামারী প্রভাব কিছুটা কমে আসায় স্বর্ণের দাম ক্রমাগত কমতে চলেছে বিশ্ববাজারে। জুয়েলার্স সমিতি দেশের মাটিতেও স্বর্ণের দাম কমিয়েছে বিশ্ব বাজারে স্বর্ণের দাম নিম্নমুখী বলে। বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দেশে ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের সোনার মূল্য বর্তমানে ৭২ হাজার ৬৬৭ টাকা প্রতি ভরি যা, পূর্বের তুলনায় ১হাজার ৯৮৩ টাকা কম।

২১ ক্যারেট সোনার দাম প্রতি ভরি ৬৯ হাজার ৫১৭ ঢাকা,১৮ ক্যারেট সোনার দাম ৬০ হাজার ৭৬৯ টাকা। সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ ৫০ হাজার ৪৪৭ টাকা। স্বর্ণের দাম তুলনামূলকভাবে কমলেও রুপার দামে তেমন কিছু পরিবর্তন ঘটেনি। প্রতি ভরি ২২ ক্যারেট রুপার দাম ১৫১৬ টাকা, ২১ক্যারেটের দাম ১৪৩৫, ১৮ ক্যারেটের দাম ১২২৫, আমি সনাতন পদ্ধতিতে তৈরী রুপার দাম ৯৩৩ টাকা। বিশ্ববাজারে গত সপ্তাহে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ৮.৯ ডলার বাড়লেও সপ্তাহের হিসেবে স্বর্ণের দাম কমেছে ২.১৪ শতাংশ। টাউনস প্রতি স্বর্ণের দাম কিছুটা কমে ১৭৮৪.৩৯ ডলারে এসে দাঁড়িয়েছে। গোটা মাসে স্বর্ণের দাম কমেছে ৪.৬২ শতাংশ।

রুপার দিকে দেখলে, প্রতি আউন্স রুপার দাম কমে দাঁড়িয়েছে ২৭.২৭ ডলার। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সোনা রুপার দাম পতনের সঙ্গে সঙ্গে অপরিশোধিত তেলের দামও কিছুটা কমে ব্যারেল প্রতি দাঁড়ালো ৫৮.৯৫ ডলারে। অপরিশোধিত তেলের দাম কমেছে ০.৮৭ শতাংশ। ব্রেন্ট ক্রুড অয়েল এর দাম কমলো অপরিশোধিত তেলের পাশাপাশি। ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম ব্যারেল প্রতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬২.৬৬ ডলারে, এর দাম কমেছে ১.২৭ শতাংশ।

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম কিছুটা কমলেও সপ্তাহের নিরিখে এর দাম সামান্য কিছুটা বেড়েছে। সপ্তাহের হিসেবে ০.৩৭ শতাংশ বেড়েছে এই তেলের দাম। মাসের নারীকে দেখলে এই তেলের দাম বেড়েছে ১১.৭৩ শতাংশ। ১৩ মাসের মধ্যে বর্তমানে এই অয়েলের দামসর্বোচ্চ স্থানে আছে।

Back to top button