পাশের সিটে বাঁধা মেয়ের লাশ, প্রায় ৮৫ কিমি রাস্তা গাড়ি চালিয়ে শ্মশানে পৌঁছলেন শোকেকাতর বাবা

নিজস্ব প্রতিবেদনএম্বুলেন্স ভাড়া চল্লিশ হাজার টাকা। অত টাকা দিতে অপারক বাবা।তাই নিজের গাড়ির পাশের সিটে নিয়ে যাচ্ছে নিজের মেয়ের লাশ সৎকারের জন্য। আর সেই ছবি নেট দুনিয়ায় সারা পরে গেছে।

ঘটনাটি ঘটে রাজস্থানের কোটা নামক এক শহরে। গত ২৪ শে এপ্রিল কোটার এক সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সীমাকে। সে করোনায় আক্রান্ত ছিল।এরপর করোনায় আক্রান্ত সীমা নিজের পরিবারকে ছেড়ে চলে যায় । তাঁর পরিবার এখন শোকে পাথর হয়ে গেছে। শোক সামলে মেয়ের সৎকারের জন্য প্রস্তুত হয় তার পরিবার।

কিন্তু অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া শুনে বাবার মাথায় হাত পড়ে যায়। মৃতার বাবা অভিযোগ করেন যে, কোটা থেকে ঝালওয়ার পর্যন্ত দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া ৪০ হাজার টাকা চাইছে চালক। অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া শুনেই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে তাদের পরিবারের। মৃতার বাবা জানায়, এত টাকা খরচ করা তাঁর পক্ষে অসম্ভব।

নিরুপায় হয়ে মেয়ের লাশ নিজের গাড়িতে বসিয়ে প্রায় ৮৫ কিলোমিটার রাস্তা পর করে শ্মশানে পৌঁছালেন বাবা। গাড়ির পাশের সিটে মেয়ের লাশ বসিয়ে বেঁধে নিয়ে শ্মশানে পৌঁছলেন তিনি। এবং তার শেষকিত্ব করলো তার পরিবার।।

Back to top button