উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্যের দাবি করা বিজেপি সাংসদের সঙ্গে বৈঠকে রাজ্যপাল, তুঙ্গে জল্পনা

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ৭ দিনের জন্য উত্তরবঙ্গ যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সোমবার তিনি সেখানে পৌঁছালে তৃণমূল প্রার্থীরা তাকে কালো পতাকা দেখাতে শুরু করে। এটা তাঁর এতদিনে অভ্যাসে পরিণত হওয়ায় সেসবের দিকে নজর না দিয়ে তিনি এক দৃষ্টিতে স্থির থাকেন।

বিজেপি সাংসদ জন বারলা পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তরবঙ্গকে আলাদা করতে চাইছেন বেশ কিছু কারণে। তার এই প্রস্তাবকে আলিপুরদুয়ারের তিন বিজেপি বিধায়ক সমর্থন করেছেন। তাই তার নাম এত ছড়িয়ে পড়ছে চারদিকে। তার সাথেই দেখা করতে গেলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর। তিনি দার্জিলিং এর রাজভবনে তার সাথে দেখা করেন।

উত্তরবঙ্গের মানুষের প্রতি বঞ্চনা করা হচ্ছে। বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গারা অবৈধভাবে উত্তরবঙ্গে প্রবেশ করছে। তারা জোর জবরদস্তি করে স্থানীয় মানুষদের কাছ থেকে জমি কেড়ে নিচ্ছে। এদিকে সরকার তাদের রেশনকার্ড বানিয়ে দিচ্ছে কিন্তু সমস্যায় পড়ে যাচ্ছে স্থানীয় মানুষজন। অনেক সুযোগ সুবিধা থেকেও বঞ্চিত হয়ে পড়ছে। এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন জন বারলা।

রাজ্যে নতুন করে জল্পনার সৃষ্টি হল রাজ্যপালের সাথে বিজেপি সংসদ জন বারলার সাক্ষাৎ করা নিয়ে। দুপুর ১২ টায় দার্জিলিং এর রাজভবনে রাজ্যপালের সাথে দেখা করেন জন বারলা কুমারগ্রামের বিধায়ক মনোজ ওঁরাকে সঙ্গী রেখে। ১ ঘণ্টার উপর এই বৈঠক চলে।

স্থানীয় মানুষদের উপর হওয়া অত্যাচার নিয়ে ও ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে রাজ্যপালের সাথে কথা বলেন তিনি। রাজ্যপাল টুইট করে জানিয়েছেন, “আজ আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বারলা এবং কুমারগ্রাম পঞ্চায়েতের ৯ জন সদস্য এবং একজন জেলা পরিষদ এসেছিলেন দেখা করতে। ওনারা আমাকে জানিয়েছেন যে, তাঁদের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে। আমি প্রশাসনের কাছে এই বিষয়ে দ্রুত হস্তক্ষেপ করার আর্জি জানিয়েছি।”

Back to top button