ছয় মাসের বেশী টিকবে না সরকার! বিস্ফোরক মন্তব্য বিজেপি নেতার

নিজস্ব প্রতিবেদনবঙ্গে ভোট শেষ হল, ফলাফল ঘোষণা হয়েছে আজ থেকে ঠিক একমাস আগে। ২ মে প্রচুর জনসমর্থন নিয়ে তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল কংগ্রেস (All India Trinamool Congress)। আর তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। কিন্তু ফলাফল ঘোষণার পর থেকেই রাজ্যে অশান্তি বেড়ে চলেছে। বিরোধী দলের কর্মীরা ক্রমে ক্রমে আক্রান্ত হয়ে পড়ছে। রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি (Bharatiya Janata party), পরবর্তী ভোটে হিংসা নিয়ে সরব হয়েছে।

এরমধ্যে রাজ্যের ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলাও দায়ের হয়েছে। এই সপ্তাহে সেই মামলার রায় বেরোনোর কথা। রাজ্যের ২ হাজারের বেশী মহিলা আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দিয়ে বাংলার ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে এগিয়ে চলেছেন। এবং ১৪৬ জন ব্যক্তি দেশের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দকে চিঠি দিয়ে রাজ্যে চলা রাজনৈতিক হিংসার বিরুদ্ধে কঠিন পদক্ষেপ নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন।

এরই মধ্যে বিজেপির নেতা সায়ন্তন বসু মন্তব্য করে রাজ্য রাজনীতিতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে দিয়েছেন। এদিন তিনি ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসে আক্রান্ত বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে শীতলকুচি এবং দিনহাটায় যান। ওনার সঙ্গে ছিলেন কোচবিহারের বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক। সায়ন্তব বসু সেখানে গিয়ে দাবি করেন, একমাস পরেও রাজ্যে সন্ত্রাস বন্ধ হয়নি।

সায়ন্তন বসু বলেন, ‘আমরা যখন এখানে আসছিলাম তখন পুলিশের সামনেই একদল মানুষ আমাদের দেখে গো ব্যাক স্লোগান দিচ্ছিল। আমাদের বহু কর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। অনেকেই প্রাণ গিয়েছে ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসে। এভাবে চলতে থাকলে এই সরকার ছয় মাসের বেশী টিকবে না। কেন্দ্র সরকার হাত-পা গুঁটিয়ে বসে থাকবে না।” সায়ন্তন বসুর এই মন্তব্যের পর রাজ্য রাজনীতিতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। একদিকে যখন অনেক জনতাই রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি করছেন, তখন আরেকদিকে সায়ন্তন বসুর এই মন্তব্য জল্পনা ছড়িয়ে দিল। যদিও তৃণমূল নেতা সায়ন্তন বসুর এই মন্তব্যকে মানতে নারাজ।

Back to top button