নারদ মামলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম জুড়ল সিবিআই

নিজস্ব প্রতিবেদনএরাজ্যে নারদ মামলা শুরু হলে তা রোধ করা খুব মুশকিল হয়ে যাবে। আর এই আশঙ্কায় প্রথম থেকেই মামলা রাজ্যের বাইরে সরানোর জন্য তড়িঘড়ি লাগাচ্ছে সিবিআই। শুধু তাই নয় এই মামলায় যুক্ত হয়ে গেলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর সঙ্গে আছেন সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় আইন মন্ত্রি মলয় ঘটকের নাম।তারা সিবিআই এর উপর প্রভাব বিস্তার করেছিল আর সেই কারণেই তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে এমনটাই সূত্রের খবর থেকে জানা গেল।আর এই অভিযোগেই সম্ভবত মামলা রাজ্যের বাইরে সরানোর তোড়জোড় শুরু করেছে সিবিআই।

গত সোমবার নাটকীয় ভাবে 4 মন্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে 4 জন মন্ত্রী কে গ্রেফতার করে সিবিআই। নারদ মামলার জন্য গ্রেপ্তার করা হয় পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং 2 বিধায়ক মদন মিত্র ও শোভন চ্যাটার্জি কে। তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয় নিজাম প্লেসে। পরে সেই প্লেস এগিয়ে পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ আইন মন্ত্রি মলয় ঘটক এবং কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সিবিআই এর তরফ থেকে জানা যাচ্ছে যে এই তিনজন সিবিআই দপ্তর ঢুকে রীতিমতো অধিকারিদের উপর চিৎকার চেঁচামেচি করছিল আর তাদের উপরে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছিল । তবে এই অভিযোগটি সিবিআই এর তরফ থেকে আনা হয় কেবলমাত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর উপর। নারদ কান্ডে পরবর্তী ঘটনা কি হতে চলেছে তা এখনো সিবিআই তরফ থেকে জানা যায় নি।

Back to top button