ভবানীপুর আসন থেকে পদত্যাগ করলেন শোভনদেব

বং ট্রেন্ডি ডেস্ক:ভবানীপুর বিধাসভায় বিধায়কের আসন ছেড়ে দিলেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তিনি শুক্রবার দুপুরে বিধানসভায় গিয়ে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে পদত্যাগ পত্র তুলে দেন। এবার ভাবনীপুর থেকে উপনির্বাচনে লড়াই করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার পদত্যাগের পর শোভন বলেন যে, দলনেত্রীকে আসন ছেড়ে দিতেই আমি ইস্তফা দিয়ে দিলাম।

আগাগোড়াই রাসবিহারী থেকে বিধায়ক হয়েছেন শোভনদেব বন্দোপাধ্যায়।ও অন্য দিকে, ভবানীপুর ছিল মমতার পুরনো আসন। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা নন্দীগ্রামের প্রার্থী হওয়ায় ফলে ভবানীপুর থেকে শোভন বাবু লড়েন। বিজেপি-র নেতা যিনি পেশায় একজন অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষকে পরাজিত করেন তিনি। নন্দীগ্রামে মমতা আসন না পাওয়ায় নিয়ম মতো মুখ্যমন্ত্রীকে কোনও না কোনও জায়গা থেকে জিতে আসতে হবে। তৃণমূল সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে যে, নিজের পুরনো কেন্দ্র ভবানীপুর থেকেই মমতা এবার উপনির্বাচনে লড়াই করবেন।

তৃণমূলের অনেক পুরনো লড়াকু সৈনিক ছিলেন শোভনদেব। তিনিই ছিলেন দলের প্রথম বিধায়ক। এক সময় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরের কংগ্রেস বিধায়ক ছিলেন শোভনদেব। তৃণমূল গঠনের পর ১৯৯৮ সালে বারুইপুরের বিধায়ক পদ ছেড়ে রাসবিহারীতে উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী হন তিনি। কংগ্রেস বিধায়ক হৈমী বসুর মৃত্যুতে ওই কেন্দ্রে উপনির্বাচন করা হয়েছিল। শোভনদেবের সেই উপ নির্বাচনে জয়ী হয়ে প্রথম বিধানসভায় পা রাখেন।।

Back to top button