মাসিক পাঁচ হাজার টাকা ভাতা সহ বিনামূল্যে রেশনের দাবিতে তুমুল বিক্ষোভ রোহিঙ্গাদের

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিভিন্ন সুযোগের পাশাপাশি মাসিক ৫ হাজার টাকা ভাতাও চাইছেন নোয়াখালীর ভাসানচরের (Bhasan Char) রোহিঙ্গারা (Rohingya)। জাতিসংঘ শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার দুই সহকারী হাইকমিশনারসহ ১৪ জন সদস্যের প্রতিনিধি দল সোমবার সেখানে তাঁদের পরিস্থিতি সম্পর্কে আলোচনা করতে গেলে, তাঁদের সামনেই বিক্ষোভ দেখায় রোহিঙ্গারা।

রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে রেখে এলেও, তাঁরা নিজেদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার দাবী করেছে। মানসম্পন্ন রেশন, কর্মসংস্থান এবং পর্যাপ্ত চিকিৎসা সুবিধাসহ মাসিক ৫ হাজার টাকা করে ভাতা দাবী করেছেন রোহিঙ্গারা। যদি দাবি পূরণ না হয়, তাঁরা সেখানে থাকবে না বলে জানিয়েছে।

গত ৩১ শে মে বেলা ১১ টায় জাতিসংঘ শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার সহকারী হাইকমিশনার রউফ মাজাও এবং গিলিয়ান ট্রিগসসহ ১৪ জন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ভাসানচরে এসে পৌঁছায়। ইউএনএইচসিআরের কোনো প্রতিনিধি দল এই প্রথম রোহিঙ্গাদের সুযোগের পর্যবেক্ষণে ভাসানচর গিয়ে পৌঁছান।

প্রতিনিধি দলকে সেখানে দেখতে পেয়েই বিক্ষোভ শুরু করে রোহিঙ্গারা। তাঁরা জানায় যে, প্রতি মাসে ৫ হাজার করে টাকা ভাতা হিসেবে তাঁদের দিতে হবে। পাশাপাশি কর্মসংস্থান থেকে শুরু করে মানসম্পন্ন রেশন, এমনকি পর্যাপ্ত চিকিৎসা ব্যবস্থার সুবিধারও দাবি জানায় তাঁরা।এবিষয়ে নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আলমগীর হোসেন জানান যে, ইউএনএইচসিআরের প্রতিনিধি দল সেখানে যেতেই বিক্ষোভ প্রকাশ করতে শুরু করে রোহিঙ্গারা। দাবি জানানোর পাশাপাশি সেখানে থাকতেও অস্বীকার করে তাঁরা।

Back to top button