শ্রীলেখাকে ‘থলথলে বৌদি’ বললেন রিমঝিম মিত্র! এই কুরুচিকর মন্তব্যের, সপাটে যোগ্য জবাব দিলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা

নিজস্ব প্রতিবেদনরিমঝিম মিত্র বর্তমানে জি বাংলায় ‘ড্যান্স বাংলা ড্যান্স’ শোয়ের অভিজ্ঞ দের মধ্যে রয়েছেন তিনি। এই অনুষ্ঠানে গুরুর আসনে থাকছেন বাংলার চার অভিনেতা তথা নৃত্যশিল্পী- ওম সাহানী, দেবলীনা কুমার , রিমঝিম মিত্র ও সৌমিলি বিশ্বাস। বহুদিন পর রিমঝিমকে দেখা গেল ছোট পর্দায়। বেশ কয়েকদিন আগে কৃষ্ণকলি ধারাবাহিকে নেগেটিভ চরিত্রে তিনি পাঠ করেন। তারপর তাকে আবার দেখা যাবে জি বাংলার পর্দায়।কিন্তু, পর্দায় আসতে না আসতেই বিতর্কে জড়িয়ে গেলেন রিমঝিম।

সোশ্যাল মিডিয়ায় রিমঝিম শ্রীলেখা মিত্রকে কটাক্ষের সুরে লেখেন যে, ‘থলথলে বৌদি আমায় ব্লকিয়েছে। কমরেট মাংস পিন্ড কি এটা ঠিক করল আমার সঙ্গে’? শেষে নরেন্দ্র মোদীর নাম পাল্টে উপহাস করে রিমঝিম লিখেছেন, ‘মুডি মাস্ট রিজা‌ইন’।এইরকম মন্তব্য কেন করলেন রিমঝিম মিত্র? একজন মহিলা হয়ে কেনই বা অন্য একজনের শরীর নিয়ে তিনি এমন বিদ্রুপ করলেন? রিমঝিম সেই প্রশ্নের কোনো উত্তর দেননি। তবে শ্রীলেখা মিত্র রিমঝিম মিত্রের পোস্ট তুলে ধরেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায় পেজে।

কটাক্ষের যোগ্য জবাব দিতে শ্রীলেখা এদিন সকালে একটি কাঁধ খোলা ছোট জামা পরে ছবি পোস্ট করেন। আর লেখেন, অপমানজনক কথাবার্তাগুলো আর তাঁকে আঘাত করে না। তিনি জানেন যে ৪০ পেরিয়েও তিনি এখনও যথেষ্ট স্বাস্থ্যবতী এবং যখন ২০ বছর বয়স ছিল, তখন কার থেকেও আজ তিনি অনেক বেশি সতেজ। তাই তাঁর কথায়, ‘ফ্যাট হওয়া নিয়ে যায় আসে না। ফিট থাকাটাই আসল’। নিজেকে সুস্থ রাখতে শরীরচর্চা করেন নিয়মিত। রোগা হওয়ার জন্য নয়।

‘আমি খাদ্যরসিক’, গর্বের সঙ্গে মেনে নেন শ্রীলেখা। এদিন তিনি ওই পোস্ট এও লেখেন, ‘হয়তো তার কারণ আমার বংশের সকলেই খেতে ভালবাসেন’। তিনি এও বলেন যে বাইরের দুনিয়ার সঙ্গে তাঁর এই লড়াই টা অনেক পুরনো। তাঁর হাঁটুর এক সমস্যার কারণে বহু দিন শরীরচর্চা করারও ক্ষমতা ছিল না তার। ছবির কাজ হারিয়ে যাওয়ার ভয়ে সে কথাও চেপে রাখতে হয়েছিল। কিন্তু আজ আর সেই বাধা বা কোনো ভয় নেই। নিজেকে সুস্থ রাখতে সব রকম পদক্ষেপ তিনি এখন করতে পারেন।।

Back to top button