অবসর নিলেও স্বস্তি নেই! আলাপনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় (Alapan Bandopadhyay) অবসর নিলেও তাঁর বিরুদ্ধে যথেষ্ট ব্যাবস্থা নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। নয়াদিল্লি সূত্রে এমনই খবর। সোমবারই ছিল আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Alapan Bandopadhyay) কাজকর্মের শেষ দিন। তবে মুখ্যমন্ত্রীর অনুরোধে তাঁর মেয়াদ ৩ মাস বাড়িয়ে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার তাঁকে চিঠি পাঠিয়ে নর্থ ব্লকে কর্মিবর্গ ও প্রশিক্ষণ দফতরে কাজে যোগ দেওয়ার জন্য বলা হয়।

সোমবার নয়াদিল্লি যাননি আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে রাজ্যের মধ্যেই রাখতে চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ওই দিন চিঠি দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান, সেই চিঠির কোনো উত্তর আসেনি। তবে ওই দিন ঠিক বিকেলে মুখ্যসচিবের কাছে আরও একটি চিঠি আসে। চিঠিতে বলা হয়, মঙ্গলবার সকাল ১০টায় নর্থ ব্লকে যোগদান করতে হবে আলাপনকে বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Alapan Bandopadhyay)। ‘এক্সটেনশন’ ছেড়ে দিয়ে আলাপন অবসর নিয়েছেন বলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠকে জানান। এইসঙ্গে আরো বলেন, তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ করতে।

কেন্দ্রীয় সরকার একটি সূত্রে বলছেন, মুখ্যসচিব অবসর নেওয়ায় স্পষ্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘ব্যাকফুটে’। প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে মুখ্যসচিবের মেয়াদ বৃদ্ধি করার চেষ্টা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তিনি একশো আশি ডিগ্রি ঘুরে গেলেন এবং অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্তে এলেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় (Alapan Bandopadhyay)। তবে এতে লাভের কিছু নেই। তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানানো হয়। এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন,”আইনত এটা প্রযোজ্য কিনা জানি না। আমি চাইলে রেখে দিতে পারতাম। উনিই আমার কাছে অবসর নেওয়ার জন্য অনুমতি চান। সেই অনুমতি আমি দিয়েছি।”

Back to top button