গরমে স্বস্তি! বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস জেলায় জেলায়

নিজস্ব প্রতিবেদনগত কয়েকদিন ধরে রোদের আগুনে পুড়ছে পশ্চিমবঙ্গ। বাঙালি হিমশিম খাচ্ছে গরম ঠেকাতে। এই বিজয় গরমের মধ্যে আবহাওয়া দফতর দিল খুশির বার্তা। আজ মঙ্গলবার বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে বিভিন্ন জেলায়। সঙ্গে বইতে পারে ৩০-৪০ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়া। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে দক্ষিণবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা, পুরুলিয়া, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া এই জেলাগুলিতে।

বজ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টি এবং ঝোড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা আছে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, দুই দিনাজপুর, মালদা এই জেলাগুলোতে। আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে সারাদিন থাকবে আংশিক মেঘলা আকাশ। কলকাতার সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা যথাক্রমে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ২৮.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি এবং ৩৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রী বেশি। আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ৮৯ শতাংশ, কমপক্ষে ৪৭ শতাংশ।

আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে এবার নির্ধারিত সময়ের আগেই বর্ষা ঢুকবে বাংলায়। আমাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ৩১-শে মে কেরলে বর্ষা ঢুকবে যা দেশে প্রবেশের স্বাভাবিক সময় ১-লা জুন। কিন্তু বাংলায় কবে আসছে বর্ষা? আবার ওদের মাথায় কী হলো বর্ষা ঢোকার সঙ্গে বাংলায় বর্ষার ঢোকার কোন সম্পর্ক নেই। যদি কেরলে বর্ষা ঢুকতে দেরি হয় তবে, বাংলায় তার কোনো প্রভাব পড়বে না। ৮-ই জুন বাংলাতে বর্ষা ঢোকার স্বাভাবিক সময়।

Back to top button