বাংলায় বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারে ২ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী মোদির

নিজস্ব প্রতিবেদন: কিছুদিন আগেই বাংলা ইয়াসের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। মৃত্যুকে ঠেকানো গেলেও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন হাজার হাজার মানুষ। আজ ফের একবার প্রাকৃতিক দুর্যোগে মৃত্যু হল আটজনের। সকাল থেকেই আবহাওয়া দপ্তর থেকে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের বেশকিছু জেলাতে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড়বৃষ্টিপাত হতে পারে। বইতে পারে ঝড়ো হাওয়া।

আবহাওয়াবিদদের অনুমান অনুযায়ী দুপুরের কিছু পরেই শুরু হয় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাত। সে সময় অনেকেই কাজ করছিলেন জমিতে। আর তার জেরেই বজ্রপাতে ফের একবার প্রাণ হারালেন আটজন রাজ্যবাসী।ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর মহকুমায়। স্থানীয় সূত্রের খবর থেকে জন্য যাচ্ছে, দুপুর বেলা ঝড়বৃষ্টি চলাকালীন মুর্শিদাবাদের মির্জাপুর-নওদা এলাকায় অনেকেই কাজ করছিলেন জমিতে।

বজ্রপাতের সময় আচমকা বাজ পড়ে মৃত্যু হয় সাতজনের। আহত হন ছ জন। বাজ পড়ে মৃত্যু হয় সাতজনের এবং আহত হন ছ জন। ইতিমধ্যেই তাদের জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদিকে বজ্রপাতের ফলে হুগলিতেও মৃত্যু হয়েছে একজনের।এবার মৃতদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

প্রধানমন্ত্রী অফিসের তরফে জানানো হয়েছে, “হঠাৎ বজ্রাঘাতে বাংলার বিভিন্ন স্থানে অনেকের প্রাণহানি ঘটেছে। জাতীয় বিপর্যয় তহবিল থেকে তাদের দু’লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দানের অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।” এছাড়া বজ্রাঘাতে আহত ব্যক্তিদের জন্য ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করা হয়েছে।

এর আগে কেন্দ্র সরকার ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলা এবং ওড়িশাকে হাজার কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দিয়েছিল। যার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলের অনেকেই সাহায্য পাচ্ছেন। এবার প্রধানমন্ত্রী মোদি এই আকস্মিক দুর্ঘটনায় স্বজন হারানো পরিবারের পাশে দাঁড়াতেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন।

Back to top button