ঋণ চাইলেন প্রাথমিক শিক্ষক, মঞ্জুর করতে টেট পাশের নথি চাইল রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক!

বংট্রেন্ডি অনলাইন ডেস্ক: আমরা সকলেই জানি ঋণ নিতে গেলে কাগজপত্র সম্পত্তি র কাগজপত্র ব্যাংকের কাছে জমা রাখতে হয়! ঠিক সেই রকমই আলিপুরদুয়ার জেলার কলকাতা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার প্রাথমিক শিক্ষক চাইতে গেলে তার কাছ থেকে ট্রেড পাশের নথি দেখতে চাইল হ্যাক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক!

আমরা সকলেই জানি যে নিয়োগ দুর্নীতিতে জেরবার হয়ে রয়েছে রাজ্যের শিক্ষা মহল! বহু শিক্ষকের চাকরি ও গিয়েছে! ব্যাংকের সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছে যে 10 দিন আগে আলিপুরদুয়ার 2 ব্লকের একজন প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক তাদের সালসালাবারি শাখায় ঋণের আবেদন জানাতে গেলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সেই শিক্ষকের কাছ থেকে স্টেট বাসের মতো দেখতে চান এবং ওই শিক্ষকের নথি দেখানোর পরে তাকে ঋণ দেওয়া হয়!

ওই ব্যাংকে অপর মতো একই রকম কোনো নির্দেশ দেওয়া হয়নি! ওই শাখার ম্যানেজার সুশান্ত কুমার মারাক ঘটনাটি মেনে নিয়েছেন এবং বলেছেন যে পৃথিবীর মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে হাইকোর্টের একটি নির্দেশ দিয়েছে! তাতে কিন্তু 269 জন্য চাকরিও গিয়েছে! তাই তারা কোন রকম ঝুঁকি না নিয়ে টে ট পাশের নদী দেখে তবে শিক্ষকদের ঋণ দিচ্ছে!

আলিপুর জেলার লিড ব্যাঙ্ক ম্যানেজার অশোক কুমার বলেন এটি কেন হয়েছে সেই ব্যাপারে তিনি উত্তরবঙ্গ ক্ষেত্রীয় গ্রামীণ ব্যাংকের সদর দপ্তর এর সঙ্গে কথা বলবেন ! এরই সঙ্গে আলিপুর দুয়ার জেলা বিদ্যালয়ের এক অশোক সুজিত সরকার বলেছেন যে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের কাছে তিনি অনুরোধ করবেন যে তারা যেন এই বিষয়টিকে মানবিকতার চোখে দেখেন!

Back to top button