দুইয়ের বেশি সন্তানে সরকারি প্রকল্প বন্ধ! সাফ জানালেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা

নিজস্ব প্রতিবেদন: অসমের হিমন্ত বিশ্ব শর্মা এই শনিবার জানিয়েছেন যে, অসমে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্যে “দুই সন্তান নীতি” প্রকল্প চালু করবে। তবে এই মুহুর্তে সমস্ত প্রকল্পে লাগু করা যাবে না তবে কিছু কিছু প্রকল্পের ক্ষেত্রে চালু করা হবে। তিনি জানিয়েছেন, স্কুল আর কলেজে বিনামূল্যে শিক্ষা অথবা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা অনুযায়ী বাড়িঘর পাওয়া এই সব প্রকল্পে এই নীতি চালু করা যাবে না তবে অসম সরকার আবাস যোজনা চালু করলে এবং রাজ্য সরকারের সমস্ত প্রকল্পেই এই নীতি চালু করা যেতে পারে।

গত মাসে অসমের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। তিনি সবাইকে সরকারি সুযোগ সুবিধা নেওয়ার জন্য “দুই সন্তান নীতি” প্রকল্প চালু করার নির্দেশ দিচ্ছে সকলকেই। কিন্তু তিনি নিজেরায় পাঁচ ভাই। তিনি সেক্ষেত্রে বলেছেন, “১৯৭০-র দশকে আমাদের আমাদের মা-বাবা অথবা অন্যরা কী করেছেন, সেটা নিয়ে এখন কথা বলার কোনও যুক্তি নেই। বিরোধীরা এখন আমাদের ৭০-র দশকে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে চাইছে।”

হিমন্ত বিশ্ব শর্মা অসমে ২০১৮ সালে “অসম পঞ্চায়েত নির্বাচন আইন ১৯৯৪” এ পঞ্চায়েত নির্বাচন লড়ার জন্য নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা আর বাড়িতে শৌচালয়ের পাশাপাশি দুই সন্তানের মানদণ্ড স্থির করে দিয়েছিল। তিনি বলেন, “অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের প্রধান তথা সাংসদ বদরুদ্দিন আজমল মহিলাদের শিক্ষা প্রদানের প্রকল্পের প্রশংসা করেছেন যা জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের সঙ্গে যুক্ত। তিনি আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে মহিলাদের শিক্ষার জন্য আমাদের তরফ থেকে চালু করা প্রকল্পের প্রশংসা করেছেন।”

মুখ্যমন্ত্রী পদে ৩০ দিন পূর্ণ করার পর তিনি বলেন, ওনার সরকার মন্দির, বনভূমি সহ কোথাও জমি দখল বরদাস্ত করবে না। তিনি আরও জানান, প্রতিনিয়ত বেড়ে চলা জনসংখ্যার কারণে দিনে দিনে দারিদ্র্যের সংখ্যা হ্ন হ্ন করে বেড়ে চলেছে। এর জন্য তিনি জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করার কথা জানিয়েছেন। ‘দুই সন্তান নীতি’ এই প্রকল্পে সবাইকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসার কথা তিনি জানিয়েছেন।

Back to top button