ভুয়ো ভ্যাকসিন কেন্দ্র থেকে টিকা নিয়ে সমস্যায় মিমি চক্রবর্তী, ধরা পড়ল ভুয়ো ভ্যাকসিন চক্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: পৌরসভার অনুমতি ছাড়াই বেআইনি ভাবে চলছিল করোনার টিকাকরণ শিবির। অনেক মানুষ সেখানে টিকা নিয়েও নিয়েছে। গত মঙ্গলবার যাদবপুরের এক সংসদ ওই শিবির থেকে টিকা নেন। কিন্তু টিকা নেওয়ার পরও তার ফোনে কোনো ম্যাসেজ আসে না। ব্যাপারটি চোখে পড়ল অভিনেত্রী মিমির। তিনি তখনই পুলিশকে অভিযোগ জানান। তিনি নিজেও ব্যাপারটিকে আরও নজর দিতে থাকে।

কসবার ওই শিবিরে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ, বিশেষ ভাবে সক্ষম ও গরিবকে টিকা দেওয়া হচ্ছিল। সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল মিমি চক্রবর্তীকেও। কিন্তু কারোর ফোনে ম্যাসেজ না আসার তার মনে সন্দেহ জাগতে থাকে।

মিমি জানিয়েছন, তাকে নাকি বলা হয়েছিলো জয়েন্ট কমিশনার অফ কলকাতা কর্পোরেশনের সহায়তায় টিকাকরণ শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে। তাই তিনিও সেখানে যান। ঠিক করেন তিনিও সেখান থেকেই ভ্যাকসিন নেবেন। তিনি গেলে যদি সকলে উৎসাহ পান তাই তিনি গিয়েছিলেন।

ফোনে কেন ম্যাসেজ আসেনি জানতে চাইলে ওই সংস্থা জানায় কিছুক্ষন দেরি হবে ম্যাসেজ আসতে। এবং অনেকটা সময় কেটে যাওয়ার পরও কোনো ম্যাসেজ আসতে দেখা যায়নি। তাছাড়াও কোউইন থেকেও কেউ কোনো সর্টিফিকেট পায়নি বলে মিমির দাবি। ইতিমধ্যেই মিমি ওই শিবিরের কাজ বন্ধ করার উদ্যোগ নেন আর পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ এসে তদন্ত করলে জানতে পারে এক ভুয়ো আই এ এস অফিসার দেবাঞ্জন দেব এই কাজ করেন। তাকেই গ্রেফতার করে পুলিশ।

Back to top button