বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্যকে ফোন মমতার, সবরকমভবে পাশে থাকার আশ্বাস

নিজস্ব প্রতিবেদন: শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে বুদ্ধবাবুর। রক্তে আচমকাই কমে যায় অক্সিজেনের মাত্রা। তাই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই অবস্থায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোলেননি বুদ্ধবাবুর শরীর খারাপের কথা। রক্তে আচমকাই কমে যায় অক্সিজেনের মাত্রা। তাই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর এদিনই দুপুরে বুদ্ধবাবুর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্যকে ফোন করে শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ করোনায় কর্মীর মৃত্যু হলে বেতন, আবাসন, সন্তানের লেখাপড়ার খরচ দেবে TATA

ফোন করে খোঁজ নেন ও জানতে চান তাঁর শারীরিক অবস্থা কেমন। খোঁজ নেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীও এখন কেমন আছেন?‌ এটা বলে আশ্বস্ত করেন যে যেকোনো পরিস্থিতিতে,যে কোনও প্রয়োজনে রাজ্য সরকার পাশে থাকবে।যে কোনও মুহূর্তে দ্বিধা সরিয়ে ফোন করতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ ইয়াসের চোখ ঘুরে গেলেও কলকাতায় বুধবার ৬৫-৭৫ কিমি বেগে ঝড়ের পূর্বাভাস

হাসপাতাল সূত্রে খবর, আপাতত স্থিতিশীল রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। প্রতি ঘণ্টায় ৩ লিটার অক্সিজেন দিতে হচ্ছে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে। রক্তে অক্সিজেন মাত্রাও পৌঁছেছে ৯০ শতাংশের বেশি। বুদ্ধদেব বাবুর জন্য 6 জন ডাক্তার নিয়ে একটা মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে।

Back to top button