দেবাংশুর মা-কে নিয়ে লেখা কবিতা শুনে আবেগে ভাসলো গোটা ‘দিদি নম্বর ১’ এর মঞ্চ! মুগ্ধ হলেন রচনা

নিজস্ব প্রতিবেদন: জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো হলো দিদি নাম্বার ওয়ান । আর দিদি নাম্বার ওয়ান কেইবা দেখেন না ! বিকাল হলেই টিভি খুলে বসে পড়েন প্রতি বাড়ির মা-বোনেরা । আর তাদের পছন্দের টিভি শো হলো দিদি নাম্বার ওয়ান । যেখানে কাস্টিং করেন রচনা ব্যানার্জি , এই শো মানুষের কাছে খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।  বর্তমানে রচনা ব্যানার্জি অভিনয় জগত থেকে অনেক দূরে আছেন , তবে তিনি এখন এই শো তে সঞ্চালনার দায়িত্ব পেয়েছেন এবং খুবই নিষ্ঠার সাথে তার পালন করেন তিনি । শুধু তাই নয় , তিনি এখন প্রতি বাড়ির মা বোনেদের  পছন্দের পাত্রি ও হয়ে উঠেছেন। এখন দিদি নম্বর ওয়ানের মঞ্চ রচনা ব্যানার্জিকে ছাড়া অসম্পূর্ণ ।

দিদি নাম্বার ওয়ান মূলত সমাজের সেই সমস্ত দিদিদের কে দেখানো হয় , যারা খুবই কঠোর পরিশ্রম করে তাদের জীবনযাত্রা চালিয়ে গিয়েছে । তবে এই রবিবার দিন ছিল সেলিব্রেটি স্পেশাল পর্ব, সেখানে বর্তমান সমাজে সোশ্যাল মিডিয়া এবং রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট থেকে আশা সেলিব্রেটিদের নিয়ে , তারা তাদের মা -দের নিয়ে এসেছিলেন দিদি নাম্বার ওয়ান এ । সেখানে উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা সায়ক চক্রবর্তী, ইউটিউবার কিরণ দত্ত, ‘টুম্পা’-খ্যাত আরব দে এবং তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য এবং সোশ্যাল মিডিয়ার সেনসেশন দেবাংশু ভট্টাচার্য।

দিদি নাম্বার ওয়ান এর সব এপিসোড দর্শকদের মন কেড়ে নেয় , তবে রবিবার দিনে যে ভাবে এপিসোডটি হয়েছিল তা সত্যিই দর্শকদের মন জয় করার জন্য যথেষ্ট । রবিবারের দিদি নাম্বার ওয়ান এর বহু ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে । আর সেখানে সব থেকে বেশি ভাইরাল হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের দেবাংশু ভট্টাচার্য্য-এর মা কে নিয়ে বলা কবিতা ।

মায়েরা যেকোনো পরিস্থিতিতে, যে কোনো কাজে, যে কোন রকম ভাবে আমাদের পাশে থাকেন। ঠিক হলে সমর্থন করেন। ভুল হলে বুঝিয়ে দেন। তারা দিন রাত নিজেদের সন্তানের জন্য প্রাণ দিয়ে কাজ কর্ম চালিয়ে যান , সেই কথাই উল্লেখ ছিল দেবাংশু কবিতায় যা শুনে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন সকলেই। সম্প্রতি সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছে সেই ক্লিপ । স্বয়ং রচনা ব্যানার্জি তার কবিতার প্রশংসা করেছেন এবং দেবাংশুর মাও নিজের ছেলের এই কবিতা শুনে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন। দর্শকরা এবং নেটিজেনরাও তার এই ভিডিও বেশ পছন্দ করেছেন। দেবাংশু নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে এই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন।

Back to top button