ইংরেজদের দেওয়া ‘ইন্ডিয়া’ নাম বদলে দেশের নতুন নাম হোক ‘ভারত’! দাবি কঙ্গনার

নিজস্ব প্রতিবেদন: বলিউডের ক্যুইন তো বটে তার পাশাপাশি বিতর্ক ক্যুইন ও এই অভিনেত্রীকে বলা যেতে পারে, বলিউডের যদি কোনো বিতর্ক থাকে আর সেই বিতর্কে অভিনেত্রীর নাম থাকবেনা তা কি কখনো হয়নি সে আর বলার উপায় রাখেনা। বিতর্কের পাশাপাশি তিনি বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে বারবার অপদস্ত করেছেন তিনি। যার কারণে তার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি নিজের মনের কথা খুলে বলতে ভালোবাসেন। তিনি এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন আমাদের দেশের নাম ‘ইন্ডিয়া’ থেকে ‘ভারত’ করা হোক। কারণ ঝাঁসির রানী লক্ষিবাই মনে করেন এই নামটি ব্রিটিশদের দেওয়া ক্রীতদাসের নামকরণ। তাই জন্য এই দেশের কোনো গৌরব নেই। তাই এই নাম পরিবর্তন করে ‘ভারত’ রাখা হোক।

কঙ্গনা লেখেন ‘‘ভারতের উত্থান তখনই সম্ভব যখন এর শিকড়ের সঙ্গে প্রাচীন আধ্যাত্মবাদ ও জ্ঞানের যোগ থাকবে সকলের। এটাই দেশের মহান সভ্যতার আত্মা। বিশ্ব দেশের দিকে উঁচু নজরে তাকাবে এবং আমরা বিশ্বনেতা হিসেবে উঠে আসতে পারব। যদি দেশের নগরকেন্দ্রিক উন্নতি হয়। তা বলে সেটা যেন পশ্চিমী দুনিয়ার অক্ষম অনুকরণ না হয়। বরং বেদ, গীতা ও যোগাসনের শিকড়ের সঙ্গে জড়িয়ে থাকে। আমরা কি এই দাসত্বের নাম ‘ইন্ডিয়া’কে বদলে ‘ভারত’ করে দিতে পারি না।’’ তিনি যুক্তি দিয়ে জানিয়েছেন, ‘ইন্ডাস ভ্যালি’ তথা সিন্ধু উপত্যকা থেকেই ‘ইন্ডিয়া’ নামকরণ। ভারত নামের মধ্যে রয়েছে, ‘ভা’ অর্থ ভাব’, ‘র’ অর্থ ‘রাগ’ ও ‘ত’ অর্থ ‘তাল’।

এক জন অভিনেত্রীকে কটাক্ষ করে লিখেছেন, সামান্য সংস্কৃত ও পৌরাণিক ভারত সম্পর্কে ধারণা থাকলেই তিনি বুঝতে পারতেন। দুষ্মন্ত ও শকুন্তলার পুত্র ‘ভরত’-এর নাম থেকেই এই দেশের নাম হয়েছে ভারত। আর একজন লেখেন, নাম পাল্টালে দেশ পাল্টায় না, মনোভাবটাও বদলানো দরকার।

Back to top button