“শোভন দা কে জীবিত অবস্থাতেই যেন ফিরিয়ে দেয়, এটুকুই শুধু প্রার্থনা” বললেন বৈশাখী

নিজস্ব প্রতিবেদন: নারদকাণ্ডে গতকাল ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র, ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে নিজাম প্যালেসে নিয়ে যায় সিবিআই আধিকারিকরা। এই প্রসঙ্গে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা ও সিবিআই অফিসার সকালে আমাদের বাড়ি ঘিরে ফেলে। আমাদের কিছু জানানো হয়নি। ওরা শোভনকে নিয়ে যায়। তারা বলেছিলেন, ৩০ মিনিটের মধ্যে উনি বাড়ি ফিরে আসবেন। আমি জোর করে নিজাম প্যালেসে যাই। সেখানে জানতে পারি, শোভনকে তারা গ্রেফতার করেছে। উনি রাজনৈতিক চক্রান্তের শিকার হয়েছেন।’

শোভন চট্টোপাধ্যায় আছে জিজ্ঞাসা করায়  বৈশাখী ফোনে বলেন, ‘ওর শ্বাসকষ্ট হয়। অক্সিজেন সাপোর্টে রয়েছে। সোমবার সারাদিন কোনও খাবার দেওয়া হয়নি। এমনকী জল পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। জেলে ইনসুলিন নিতে পারেননি। ওর অনেক কোমর্বিটিডি রয়েছে, দুশ্চিন্তাতেই আছি। স্থিতিশীল করার চেষ্টা করা হয়। ভোরে যখন হাসপাতালে আনা হয়, তখন চা বিস্কুট দেওয়া হয়। ঘুম পরাড়ানোর চেষ্টা করা হয়। ডাক্তার আমার কাছে কিছু নোটস চেয়েছেন। ওঁদের সঙ্গে দেখা করব আজ’।

বৈশাখী আরও বললেন, ‘মহা ক্ষমতাবান এজেন্সির সঙ্গে শোভনবাবুর মতো সাধারণ মানুষ কখনও পেরে উঠবেন না। জীবিত অবস্থায় টানাহ্যাঁচড়া করে নিয়ে গিয়েছিল, জীবিত অবস্থাতেই যেন ফিরিয়ে দেয়, এটুকুই শুধু প্রার্থনা।’ সোমবার সকাল থেকে শোভনের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল বৈশাখীকে। রাতে শোভনকে জেলে নিয়ে যাওয়ার সময় কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন বৈশাখী।

Back to top button