চরম দারিদ্রতায় মদ বিক্রি, পড়াশোনা শিখিয়ে ছেলেকে আইএএস অফিসার করলেন মা

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রতিভা থাকলে কোনো অভাব তা বাঁধা দিতে পারে না।এর আগেও নানা ধরণের প্রতিভা আমাদের সামনে এসেছে।তার মধ্যে অনেকেই অনেক বড় বড় কাজ করেছেন দরিদ্রতার সত্ত্বেও।এমনই এক ঘটনা আবার ঘটলো। ভিল উপজাতির এক দরিদ্র ঘরের সন্তান আই এ এস অফিসের হয়ে দেখালো।

তার নাম রাজেন্দ্র বাবু। বহু বাঁধা পেরিয়ে তিনি সফল হয়েছেন তার লক্ষে।তার সাফল্যের পেছনে তার মা ও তার ঠাকুমার অবদান অনসিকার্য।বহু কষ্ট করে তাকে তারা পড়াশুনো শিখিয়েছেন।

তার পিতার নাম ভান্দু ভারুদ এবং মায়ের নাম হলো কমলা বাই। জন্মের আগেই তার পিতার মৃত্যু হয়। অতি কষ্টে তিনি মানুষ হন।স্থানীয় মুহুয়া ফুল সংগ্রহ করে তা থেকে দেশি মদ বানিয়ে বিক্রি করে সংসার চালাতে তার মা এবং ঠাকুমা।প্রতিদিন ১০০ টাকা করে আয় করে কোনোরকমে ৫ জনের সংসার চলতো।

ছোট থেকেই তিনি মেধাবী ছিলন। তিনিসিবিএসসি বোর্ডের স্কুলে পড়াশোনা করেন।পরে দশম শ্রেণীর সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে স্কলারশিপ পান।আর সেই টাকায় মুম্বাইয়ের জি এস মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন তিনি। তারপর ইউপিএসসি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত হয়ে ২০১২ সালে তিনি ফারিদাবাদে আই আর এস অফিসার পদ অর্জন করেন। এবং ২০১৭ সালে চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ও ২০১৮ সালে নন্দূর্বার জেলার ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট পদ অর্জন করেন তিনি।।

Back to top button