১৫ লাখের জন্য ৭ বছর ধরে অপেক্ষা করছি, একটু আপনিও করুন! ৩০ মিনিট দেরি নিয়ে বললেন মহুয়া মৈত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে 30 মিনিট অপেক্ষা করানোর জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে নিয়ে সমালোচনা করে বিজেপি।আর তার পাল্টা জবাব দিলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। মুখ্যমন্ত্রীকে সমালোচনা করার কারণে ট্যুইটে সরাসরি আক্রমণ করন মহুয়া মৈত্র।

শুক্রবার ঘূর্ণিঝড় যসের তান্ডবের ফলে দুর্যোগ কবলিত এলাকা পরিদর্শন করতে আসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীও এদিন বাংলায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ খতিয়ে দেখতে আকাশপথে পরিদর্শনে বের হন। তবে একই জায়গায় থাকলেও, প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে আধঘন্টা দেরীতে পৌঁছান তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে আধঘন্টা ধরে বসিয়ে রাখেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। কারণ হিসেবে তিনি বলেন যে- সাগর দ্বীপ থেকে কলাইকুন্ডা পৌঁছতে মুখ্যমন্ত্রী প্রথমত ২০ মিনিট দেরী হয়। আর বাতাসের তাঁর হেলিকপ্টার আকাশেই কিছুক্ষণ চক্কর কাটছিল, সেই কারণে মুখ্যমন্ত্রী বৈঠকে পৌঁছতে কিছুটা দেরি করে ফেলে।

কিন্তু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর এই আচরণের কারণে নিন্দার ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, সকলেই মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সমালোচনায় মুখর হন। এপ্রসঙ্গে অমিত শাহ বলেন, ‘আজকে মমতা দিদির এই আচরণ, সত্যই দুর্ভাগ্যজনক’।

যখন বিরোধীরা মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সমালোচনার করছেন, তখন অন্যদিকে বিরোধীদের মুখের উপর পাল্টা জবাব দেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। ট্যুইটে তিনি পোস্ট করেন, “৩০ মিনিট অপেক্ষা করার জন্য এত হাঙ্গামা করছেন কেন আপনারা? ১৫ লক্ষ টাকার জন্য তো ৭ বছর ধরে অপেক্ষা করছে ভারতবাসী। টিকার জন্য মাসের পর মাসে অপেক্ষা করে রয়েছেন, এটিএমের বাইরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইন দিচ্ছেন। মাঝে মধ্যে আপনারাও একটু অপেক্ষা করুন”

Back to top button