ঘূর্ণিঝড়ের কারণে পিছল নারদ মামলার শুনানি, আরো কয়েকদিন ঘরবন্দি থাকবেন ৪ হেভিয়েট নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ধেয়ে আসছে বাংলার দিকে। এর ফলে বন্ধ রয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। এর ফলে নারদ মামলার শুনানির দিন গেল পিছিয়ে। চারজন হেভিওয়েট নেতাকে এখনো কিছুদিন থাকতে হবে গৃহবন্দি হয়ে।

হাইকোর্টে তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল ২৬ এবং ২৭ তারিখে ঘূর্ণিঝড়ের ফলে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটতে পারে। এরপর কবে মামলার শুনানি হবে তা ২৭ তারিখ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়ে দেওয়া হবে। গত ১৭-ই মে সোমবার সিবিআই নারদ মামলা কাণ্ডে গ্রেপ্তার করে ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim), মদন মিত্র (Madan Mitra), শোভন চ্যাটার্জি (Sovan Chatterjee) এবং সুব্রত মুখার্জিদের (Subrata Mukherjee)। তারপর থেকেই রাজনৈতিক মহলে উঠেছে তোলপাড়। নিজাম প্যালেসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত হয় নিজেকে গ্রেপ্তার করতে বলেন তিনি।

প্রথমেই চারজনের জামিন মঞ্জুর করা হলেও পরে হাইকোর্টের নির্দেশে তাদের জামিন স্থগিত করা হয় এবং প্রেসিডেন্সি জেলে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মামলায় ভারপ্রাপ্ত বিচারপতি অশোক বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন চারজন হেভিওয়েট নেতার জামিনের পক্ষে, কিন্তু মামলায় প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল জামিনের বিপক্ষে থাকার ফলে এই চারজন মুক্তি পেলেও গৃহবন্দি থাকা নির্দেশ দেওয়া হয়।

সোমবার এই মামলার শুনানির দিন ছিল কিন্তু সিবিআই রবিবার মাঝরাতে বৃহত্তম বেঞ্চ গঠনের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিমকোর্টের কাছে যায় অনলাইনে মামলা দায়ের করে। এরপর আবার শুনানির দিন ঠিক করা হয় বুধবার, কিন্তু ঘূর্ণিঝড় ইয়াশ এর ফলে ফের পিছিয়ে গেল শুনানির দিন।

Back to top button