রাজ্যপাল জগদীপ ধনকারের বিরুদ্ধে উঠল ১০৯ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ!

নিজস্ব প্রতিবেদনপশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকার নিজের বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে বারংবার সংবাদ শিরোনামে থাকেন। প্রথম থেকেই তার সাথে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরোধ লক্ষ্য করা গিয়েছে। এর আগে বেশ কয়েকবার রাজ্যপালের নামে শাসক দলের তরফে কেন্দ্র সরকারের কাছে নালিশ জানানো হয়েছে। যদিও তার পরেও বিশেষ কোনো পরিবর্তন ঘটতে দেখা যায়নি। এবার সেই রাজ্যপালের নামেই উঠল ১০৯ কোটি টাকা তছরুপ করার অভিযোগ।

শিবসেনার মুখপত্র সামনার দাবি অনুযায়ী,ইন্ডিয়ান মিউজিয়ামের জন্য ১০৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার।সেই টাকা সঠিকভাবে পৌঁছে যাবার পরেও কেন কাজে ব্যবহার করা হয়নি তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে এখানে!

প্রথমে বিষয়টি নিয়ে সামান্য ধোঁয়াশা থাকলেও অডিট রিপোর্টে সম্পূর্ণ ব্যাপারটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে।অন্যদিকে বর্তমানে মিউজিয়াম বোর্ডের ট্রাস্টি হিসেবে রয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকার, তাই তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছে। ট্রাস্টি হওয়ার পরেও এই বিষয়ে তদন্তের কোনরকম নির্দেশ দেননি তিনি। পাশাপাশি তিনি এই সম্পূর্ণ ব্যাপারটিকেও স্তিমিত করে দিয়েছেন। এই অবস্থায় রাজ্যপালকে এই ঘটনায় জড়িত অভিযোগে পদত্যাগ করার দাবি করছে শিবসেনা কর্তৃপক্ষ।

যদিও এখনো পর্যন্ত এ ঘটনার বিষয়ে প্রত্যক্ষভাবে কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছানো হয়নি। বিশেষ উল্লেখ্য, এশিয়ার প্রাচীনতম এবং ভারতের বৃহত্তম ভারতীয় জাদুঘর নামে পরিচিত। খবর অনুযায়ী, টাকা তছরুপ ছাড়াও জাদুঘরটির রক্ষণাবেক্ষণ এবং নিয়ম নিয়ন্ত্রণে রাখার বিষয়ে অনেকগুলি কেলেঙ্কারীর ঘটনা ঘটছে। এখনো পর্যন্ত এই ঘটনায় আইনের দ্বারস্থ কেউ হয়নি । তবে রাজ্যপালের এই কেলেঙ্কারিতে যুক্ত থাকার অভিযোগে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ধরনের জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। শেষ পর্যন্ত কি হয় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

Back to top button