অবশেষে ভক্তদের অপেক্ষার অবসান, পর্দায় ফিরছেন যশ-মধুমিতা জুটি!

নিজস্ব প্রতিবেদন: অরণ্য সিংহ রায় এবং পাখি কুমারী ঘোষ দস্তিদার এই চরিত্র দুটিকে সিরিয়াল প্রেমীরা কোনোদিন ভুলতে পারবে না। ২০১৪ সালে রাত ৮ঃ৩০ বাজলেই এরা উপস্থিত হত এদের কেমিস্ট্রি নিয়ে। এই সিরিয়ালটি টিআরপিতেও ছিল সবার ওপরে। কিন্তু এত জনপ্রিয়তা থাকা সত্বেও খুব তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে গিয়েছিল ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ ধারাবাহিকটি।

ধারাবাহিকটা শেষ হয়েছে অনেক বছর হল। কিন্তু আজও বহু ভক্তরামনে করেন পাখি অর্থাৎ মধুমিতা সরকার এবং অরণ্য অর্থাৎ যশ দাশগুপ্ত, একে অপরের জন্য যেন মেড ফর ইচ আদার। যশ দাশগুপ্ত ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ ধারাবাহিকের পর বহু হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন। ‘গ্যাংস্টার’ সিনেমা দিয়ে অভিষেক হয় তার। এছাড়া ‘ওয়ান’,’টোটাল দাদাগিরি’,’,ফিদা’,’মন জানে না’,’সোস কলকাতা’ সিনেমার মধ্যে দিয়ে আরো জনপ্রিয় জয়ে ওঠেন তিনি। মধুমিতাও নিজেকে ধারাবাহিকে নিজেকে আটক করে রাখেননি, তিনিও অর্জুন চক্রবর্তীর ‘লাভ আজ কাল পরশু’ সিনেমা দিয়ে টলিউডে প্রবেশ করে নিয়েছেন। এছাড়াও ‘দ্যা জাজমেন্টাল ‘ জি ফাইভের নিজস্ব ওয়েব সিরিজে অভিনয়ের জন্য বেশ প্রশংসিত হয়েছেন তিনি।

কিন্তু এরা দুজন যতই আলাদা আলাদা করে সিনেমা করুক মানুষ এদেরকে টিভির পর্দায় একসাথে দেখতে চান। তাই এবার নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়াতে এদের ছবি আর পোস্টার দিয়ে অনুরোধ করেছেন জুটি বেঁধে অভিনয় করার জন্য। এবার মনে হয় ফ্যানদের দীর্ঘ দিনের আশা পূরণ হতে চলেছে। এই সু-খবরটি এসেছে এস.ভি.এফ এর তরফ থেকে।

এস.ভি.এফ সংস্থা দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে এই নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই সুখবর পেয়ে যশ ও মধুমিতার ফ্যানরা তাদের কেমিস্ট্রি দেখার জন্য বেশ উৎসাহী বলেই মনে হচ্ছে। তবে কি সেই নতুন সিনেমার নাম বা কে তার পরিচালক সেই বিষয়ে এই মুহূর্তে প্রযোজনা সংস্থা কিছুই জানানি। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, তাহলে কি ২০২১ এ এরা আবার পর্দায় রাজ করতে আসছেন। তা সময় বলে দেবে।

Back to top button