ভোট পরবর্তী হিংসায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিন সদস্যের কমিটি গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের

নিজস্ব প্রতিবেদন: কলকাতা হাইকোর্ট ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বড় রায় দিল। এদিন আদালতের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ নির্দেশ জারি করে বলেন, “বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসায় যারা ঘরছাড়া হয়েছেন, তাঁদের ঘরে ফেরাতে তিনজন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করতে হবে।” আদালত জানায়, ‘প্রতিটি মানুষেরই বাড়ি ফিরে যাওয়া এবং শান্তিতে বসবাস করার অধিকার রয়েছে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার দায়িত্ব রাজ্য সরকারকেই নিতে হবে।”

আদালতের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে,” তিন সদস্যের কমিটিতে রাজ্য সরকারের লিগান সার্ভিসের মেম্বার সেক্রেটারি এবং রাজ্য ও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের মনোনীত একজন করে ব্যক্তিকে এই কমিটিতে রাখতে হবে।” আদালতের এই পাঁচ সদস্যের বেঞ্চে ছিলেন হাইকোর্টের ভাররপাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল, আইপি মুখোপাধ্যায়, সুব্রত তালুকদার, হরিশ টন্ডন এবং সৌমেন সেন।

আদালত জানিয়েছে যে, যারা ভোট পরবর্তী হিংসার পর ঘরছাড়া তাঁদের রাজ্যের লিগান সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে একটি মেল পাঠাতে হবে। এরপর সেই মেলের ভিত্তিতে তিনজনের কমিটি স্থানীয় থানায় যোগাযোগ করে তাঁদের বাড়িতে ফেরানোর ব্যবস্থা করবেন।

বিশেষ উল্লেখ্য, ২ মে ভোটের ফল প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই রাজ্যজুড়ে শুরু হয় অশান্তি। কোথাও বিরোধী দলের কর্মীদের বাড়িতে ভাঙচুর করা হয়, কথাও বা আগুন ধরিয়ে দেওয়া, আবার কোথাও শুধুমাত্র বিরোধী দল করার জন্য সেই পরিবারের মহিলাদের ধর্ষণ করে প্রাণে মেরে ফেলা। বিজেপি প্রথম থেকেই রাজ্যের ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বরাবরই সরব হয়েছিল। এমনকি রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় নিজে গিয়ে অসমে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে যাওয়া বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আসেন। আর এবার হাইকোর্টের নির্দেশের পর আশার আলো দেখছে গৃহত্যাগীরা।

Back to top button