প্রকাশ্যে এলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বামী, মুখ খুলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন সম্পর্ক নিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদনরাজ্য রাজনীতিকে তোলপাড় করে রেখেছে নারদ মামলা , গত সোমবার নারদ মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় রাজ্যের চার হেভিওয়েট নেতাদের। বিচারক দের মতের অমিল থাকার জন্য চারজন নেতা অভিযুক্ত সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায় এখন আপাতত গৃহবন্দি। আর তাদেরকে আগামী বুধবার পর্যন্ত অভিযুক্ত দের হাউস এরেস্ট থাকতে হবে ।

আবার অন্যদিকে মিমের ছড়াছড়ি সোশ্যাল মিডিয়া তে । সোশ্যাল মিডিয়া তে ঘুর ঘুর করছে শোভন-বৈশাকির মিম। অনেকে তাদের প্রেমের জুটিকে রোমিও জুলিয়েটের সঙ্গে তুলনা করেছেন । তবে প্রেসিডেন্সি জেলের ফাটকে কান্না থেকে শুরু করে এসএসকেএমের উডবার্ন ওয়ার্ডে শোভনের সঙ্গে একসাথে থাকার বৈশাখীর আবেদন নেটিজেনদের নজর কেড়েছে। শুধু তাই না এসএসকেএম থেকে বৈশাখী তার নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে শোভনকে সরিয়ে তুলবেন বলেছেন তা সবার নজর কারে।

তার স্বামী হলেন মনোজিৎ মণ্ডল। এবার মনোজিৎবাবু বৈশাখী-রত্না প্রসঙ্গে মুখ খুললেন। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের প্রথম স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়কে মনোজিৎ বাবু বলেন, “আমি ওনাকে সেভাবে চিনি না। ওনার সঙ্গে দু’একবার কথা হয়েছে। উনি এখন স্বাভাবিক পরস্থিতিতে নেই। বিচ্ছেদের মামলা চলছে, উনি মানসিক দিক থেকে ভেঙে পড়েছেন। উনি অসুস্থও হয়ে পড়েছেন, ওনার এখন চিকিৎসার দরকার।”

এরপর স্ত্রী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরকীয়ার কথা মেনে নেন অভাগা স্বামী মনোজিৎ মণ্ডল। তিনি বলেন, ‘কেউ এভাবে ২২ বছরের সম্পর্ক ভেঙে দেয় কি করে ?” মনোজিৎবাবু বলেন, “ওদের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার আসল কারণ আমরা সবাই জানি। তবে বৈশাখী কখনই ওদের ডিভোর্সের কারণ হতে পারে না। পরকীয়া এখন বৈধ হয়ে গেছে। এখন এটা নিয়ে কারোর কোনও অসুবিধে নেই। এখন যে কেউ করতে পারে পরকীয়া।” অর্থাৎ এর থেকেই বোঝা যায় নিজের স্ত্রীকে বাঁচাতে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন স্বামী মনোজিৎ।

Back to top button