আগামী ৪৮ ঘণ্টায় বাংলায় বাড়বে দুর্যোগ, ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস

নিজস্ব প্রতিবেদন: বুধবার রাত থেকেই প্রবল বর্ষায় নাজেহাল মানুষ। রাজ্যের সমস্ত জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ কিন্তু শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গ ও সংলগ্ন এলাকায় আর্দ্রতা বেড়ে চলেছে। আসতে চলেছে আরও প্রবল বর্ষা। বঙ্গোপসাগরে তৈরী হয়েছে নিম্নচাপ।

তার জেরে একটি ঘূর্ণবাতের সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে টানা ৪৮ ঘণ্টা ধরে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। জানানো হয়েছে, কলকাতা সহ দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, বাঁকুড়া, পূর্ব এবং পশ্চিম বর্ধমানে বজ্রবিদ্যুৎ সহ প্রবল বৃষ্টিপাত হবে।

ইতিমধ্যেই উপকূলে কড়া সতর্কতা জারী করা হয়েছে।মৎস্যজীবী তথা উপকূল অঞ্চলের মানুষদেরকে সমুদ্রে যেতে বারণ করা হয়েছে, ঘর থেকে বেরোতে বারণ করা হয়েছে। পরিস্থিতি খুব খারাপ অবস্থায় চলে গেলে নিকটবর্তী ত্রাণ শিবিরে গিয়ে আশ্রয় নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনার আছে।

বুধবার রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত টানা ভারী বৃষ্টির জেরে কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় জল জমে গিয়েছে। ভারী বৃষ্টিতে মানুষ নাজেহাল। সারারাত একটানা বৃষ্টিতে কলকাতার একাধিক যায়গা জলমগ্ন। সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, ঠনঠনিয়া, আমহার্স্ট স্ট্রিট সহ ল্যান্সডাউন রোড, লেক গার্ডেন আর ও বি, যোধপুর পার্ক, ই ডি এফ হাসপাতাল আনোয়ার শাহ, ঢাকুরিয়া, আলিপুর বর্ধমান রোড, খিদির পুর, সাদার্ন অ্যাভিনিউয়ের অধিকাংশ যায়গা জলমগ্ন।

Back to top button