বাংলায় আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় ইয়াশ, এই চার জেলায় জারি হলো চরম সতর্কতা

নিজস্ব প্রতিবেদন: শক্তি বাড়িয়ে বাংলার দিকে ধেয়ে আসছে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস।পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর ও উত্তর আন্দামান সাগরে ঘনীভূত গভীর নিম্নচাপ আজ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হল। আগামী ২৪ ঘণ্টায় শক্তি বাড়িতে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে ইয়াস (Yaas)। এরপর উত্তর উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বুধবার সকালে উত্তর ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে পৌঁছবে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়। ওই দিন দুপুরে পারাদ্বীপ ও সাগরদ্বীপের মাঝে আছড়ে পড়তে পারে ইয়াস।

ঝড়ের কথা মাথায় রেখে একদিকে যেমন নবান্নের পাশে উপান্নে কন্ট্রোল রুম খুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তেমনই ইতিমধ্যেই উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। সরকারি দপ্তরের জরুরী পরিষেবা সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের ছুটি ইতিমধ্যেই বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া শনিবার থেকেই বিস্তীর্ণ অঞ্চলে শুরু হয়েছে মাইকিং। রবিবার থেকেই সমুদ্রে যেতে বারণ করে দেওয়া হয়েছে মৎস্যজীবীদের।

এই নিম্নচাপ ২৪ মে সকাল থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় নিজের শক্তি বাড়িয়ে ক্রমশ একটি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। আপাতত যদিও পোর্ট ব্লেয়ার থেকে প্রায় ৬০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে এই ঘূর্ণিঝড়। তবে ২৬ তারিখ তা আছড়ে পড়তে পারে বাংলা এবং উড়িষ্যার বিভিন্ন উপকূল এলাকায়। 26 শে মে 27 শে মে সর্তকতা জারি করা হয়েছে মালদা মুর্শিদাবাদ দক্ষিণ দিনাজপুর বীরভূম বাঁকুড়া পুরুলিয়া বর্ধমান। হুগলি বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে জানা গিয়েছে, জানা যাচ্ছে যে উত্তর 24 পরগনা দুই মেদিনীপুর সহ বিস্তীর্ণ এলাকাতেও ঝড় বৃষ্টির প্রভাব বেশি পড়বে এই চারটি জেলাতে সর্তকতা জারি করা হয়েছে।

যশ মোকাবিলায় কেন্দ্র ও রাজ্যকে হাত মিলিয়ে কাজের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই ৬৫টি মোকাবিলা বাহিনীর দল তৈরি করেছেন। ২০ টি অতিরিক্ত স্ট্যান্ডবাই টিম পাঠানো হয়েছে উপকূলবর্তী এলাকাতে। বিভিন্ন অঞ্চলে মজুত রয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনীও।

Back to top button