“স্কুল খুললে খরচ, মদের দোকান খুললে লাভ”! নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে ফের রাজ্যকে খোঁচা দিলীপের

নিজস্ব প্রতিবেদন:   কড়া হাতে করোনা পরিস্থিতি সামলাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। লকডাউনের সময় বাড়িয়ে করা হয়েছে ১ জুলাই। খুলছে না স্কুল কলেজ। মাধ্যমিক – উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল। আর সেই নিয়ে রাজ্যকে তোপ দাগলেন বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ।

পড়ুয়াদের সুরক্ষার জন্য দীর্ঘদিন বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল কলেজ। সরকারি বেসরকারি সব অফিস এখন প্রায় বন্ধই রাখা হয়েছে । আর এই দুর্দিনে খোলা রিয়েছে মদের দোকান। সেই প্রসঙ্গ টেনে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, “স্কুল-কলেজ খোলা থাকলে রাজ্যের খরচ। আর মদের দোকান খুললে লাভ। স্কুলে গেলে বাচ্চারা করোনা ছড়াবে আর মদের দোকানে মারামারি করলে কোনও সমস্যা হচ্ছে না।” 

গত মে মাসের মাঝখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছিল বিশাল ভাবে। তারপরেই লোকাল ট্রেন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য , আসতে আসতে বন্ধ হয় সব কিছুই , প্রথমে ১৫ দিন কড়া ভাবে লোকডাউন পালন করে রাজ্যবাসী , তার পরের ১৫ দিন আবার লোকডাউন এ কেটে যায় তাদের জনজীবন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সংক্রমিত হয়েছে সাড়ে তিন হাজার মানুষ। যা পূর্বের তুলনায় অনেকটাই কম। তবুও ঝুঁকি নিতে রাজি নন মুখ্যমন্ত্রী। ফলে ১৫ জুন পর্যন্ত যে বিধিনিষেধ ছিল, তা বাড়িয়ে করা হয়েছে ১ জুলাই।

টিকাকরণ নিয়ে জোর দিতে চলেছে রাজ্য সরকার। সোমবার সাংবিধানিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাত্র ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবনার কথা বলেছেন । বৈঠক শেষে তিনি জানান, ” যাতে পড়ুয়াদের কোনও সমস্যা না হয়। ওদের উপর কোনও চাপ না পড়ে, সেই ভাবেই মূল্যায়ণের সিদ্ধান্ত নিতে বলা হয়েছে সংশ্লিষ্ট কমিটিকে। “

Back to top button