রায় মেনে নিতে পারছে না, অশান্তি পাকাতেই পুনর্গণনা চেয়ে আদালতে যাচ্ছে বিজেপিঃ পার্থ চট্টোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: বলাই বাহুল্য, ২ মে একুশের নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হলেও, তার রেশ এখনও কাটেনি। একদিকে তৃণমূল যেমন নন্দীগ্রাম সহ অন্য চার বিধানসভায় পুনর্গণনার দাবি কলকাতা হাইকোর্টের তুলেছে, ঠিক তখনই অন্যদিকে বিজেপিও প্রায় ৫০ টি বিধানসভা আসন পুনর্গণনার দাবি তুলে আদালতের মুখোমুখি হওয়ার কথা ভাবছে।

তৃণমূল এর আগে বহুবার বলেছে, নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর জয়ের পিছনে রাজনৈতিক প্রভাব খাটানোর প্রমাণ আছে। শেষ পর্যন্ত সেই সূত্র ধরেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুনর্গণনার দাবি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের সম্মুখীন হয়েছেন। আগামী বৃহস্পতিবার মামলার শুনানি রয়েছে।

অন্যদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও তৃণমূলের এই কাণ্ডতে মুখ খুলেছেন। তিনি পরিষ্কারভাবে জানিয়েছেন, প্রায় ৫০ টি বিধানসভা কেন্দ্রে অত্যন্ত কম মার্জিনে হেরেছে বিজেপি। কোথাও ব্যবধান দুহাজার কোথাও বা এক হাজারের কিছু। সরাসরি পুনর্গণনার কথা না না বললেও তার দাবি, অনেক কেন্দ্রেই আসলে তৃণমূল নেতাদের ভয়ে শেষ পর্যন্ত বসে থাকতে পারেননি বিজেপি এজেন্টরা। আর সেই কারণেই ফলাফলে কারচুপি করেছে তৃণমূল। ইতিমধ্যেই আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলছেন তিনি। নেতৃত্ব চাইলে আগামী দিনে রণনীতি ঠিক করা হবে।

তবে তার আগেই এ ব্যাপারে মুখ খুললেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তৃণমূলের নেতা এদিন টুইটারে লিখেছেন, “রাজ্য জুড়ে বিজেপি নেতারা যেভাবে বারবার অশান্তি তৈরীর ছুতো খুঁজে চলেছেন তা দেখে সত্যিই উদ্বিগ্ন। আসলে বাংলার মানুষের দেওয়া রায় মেনে নিতে পারছেন না তারা।” এখন দেখার বিষয় হল আগামী দিনে এই ঘটনা কোনদিকে বাঁক নেবে।

Back to top button