বড় সিদ্ধান্ত মোদী সরকারের, ৫ রাজ্যে অমুসলিমরা পাবে ভারতীয় নাগরিকত্ব, বাদ বাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদনরাজ্যে বসবাসকারী অ-মুসলিমদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে- শুক্রবার এমনটাই ঘোষণা করল কেন্দ্র সরকার। শুধু তাই না, ৫টি রাজ্যের হিন্দু, শিখ, জৈন এবং বৌদ্ধরা নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য তাদের অবিলম্বে আবেদন জানানোর কথাও জানানো হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে।

শুক্রবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে, “বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে আগত যেসকল অ-মুসলিম শরণার্থী রয়েছেন গুজরাট, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান ও ছত্তিশগড়ের ১৩ জেলায়, তাঁরা ভারতের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন”। কিন্তু তালিকা থেকে বাদ বাংলা। পাশাপাশি এখানে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ১৪ ডিসেম্বরের মধ্যে এখানে যারা এসেছেন, তাঁরা আবেদন করতে পারবেন।

২০১৯ সালে কেন্দ্র সরকারের জারী করা নাগরিকত্ব আইন (CAA) নিয়ে গোটা দেশজুড়ে বিক্ষোভ দেখা দেয়। এই নিয়ে দিল্লীতে দাঙ্গা চলে দীর্ঘদিন ধরে, বিক্ষোভ দেখায় বহু মানুষ।তারপর করোনার প্রথম ঢেউ আক্রমণ করায় সেবিষয় কিছুটা চাপা পড়ে গেলেও, আবারও এই বিষয় নিয়ে সরকার নড়েচড়ে বসেছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয় যে, “বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে আগত মানুষদের করা আবেদনের সত্যতা প্রথমে যাচাই করে দেখবেন সংশ্লিষ্ট রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব কিংবা জেলাশাসকরা। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে, তবেই তাঁদের ভারতীয় নাগরিক হিসেবে নাম নথিভুক্ত করে নাগরিকত্বের শংসাপত্র দেওয়া হবে”।

আরও জানা যায় যে, এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে- ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইন ও ২০১৯ সালের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের অধীনেই। আর এই পর্বে এই সুযোগ পাচ্ছেন গুজরাটের মোরবি, রাজকোট, পাটন ও বদোদরার বসবাসকারী অ-মুসলিমদের পাশাপাশি রাজস্থানের ঝালোর, বারমের, সিরোহি, উদয়পুর, পালির অ-মুসলিম বাসিন্দারা। আর পাচ্ছেন ছত্তিশগড়ের দুর্গ ও বালোদাবাজার, পাঞ্জাবের জলন্ধর এবং হরিয়ানার ফরিদাবাদের অ-মুসলিমরা।।

Back to top button