গণনায় কারচুপির অভিযোগ, নন্দীগ্রামে ভোটের ফলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাই কোর্টে মমতা

নিজস্ব প্রতিবেদন: নন্দীগ্রামে নির্বাচনে কারচুপির লড়াই এবার গিয়ে পৌঁছলো উচ্চ আদালতে। একুশের নির্বাচনে নন্দীগ্রাম হাতছাড়া হয় মমতা ব্যানার্জির।মাত্র ১৯০০ ভোটের ব্যবধানে শুভেন্দু জিতে যান।এই ফলাফল সম্পূর্ণ ভুল তা প্রমাণ করতে হাই কোর্টের কাছে মামলা দায়ের করলেন মমতা ব্যানার্জী নিজেই।বিচারপতি কৌশিক সিঙ্গেল বেঞ্চে মামলা দায়ের করা হয়।শুক্রু বার তার শুনানি।

গত ২ মে, ২১ এর ভোটের ফলাফল ঘোষণা হয়।আর সবার নজর ছিল নন্দী গ্রামের ফলাফলের দিকে।কারণ সেখানে প্রার্থী ছিল তৃনমুল নেত্রী মমতা ব্যানার্জী নিজে।গণনার প্রথম দিকে তিনি এগিয়ে থাকলেও তিনি ১৯০০ ভোটে পরাজিত হন।তার বিপক্ষে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তারপর এই ফলাফল কতটা সত্য তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় ছিল মমতা ব্যানার্জির মনে।তিনি বলেন এই রায় আমি মাথা পেতে নিলেও এতে আমার যথেষ্ট সন্দেও আছে। আমি প্রয়োজনে সুওরিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে রাজি আছি।তিনি নির্বাচন কমিশনের কাছে পুনর্নির্বাচনের আবেদন জানলেও সেই আবেদন খারিজ করে হয়।

তার পরেই তিনি হাই কোর্টের কাছে আবেদন জানান।এবং সেই মামলার রায় শুক্রবার জানা যাবে।এই মামলার প্রথম শুনানি শুক্রু বারে বেরোবে।রাজ্যের হয়ে কে সওয়াল করবেন তা এখনো পরিষ্কার নয়।কিন্তু নন্দীগ্রামে আইনি লড়াই নিয়ে একটা বড় ইস্যু হয়ে চলেছে বলে মনে করছে অনেকেই।।

Back to top button