কাছের মানুষকে হারালেন অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্য, পরিবারে শোকের ছায়া

নিজস্ব প্রতিবেদন: টলি পাড়ার হাসিখুশি অভিনেত্রী অপরাজিতা আঢ্য এর খুব কম বয়সে বিয়ে হয়ে যায়। শশুর বাড়ি আসে তিনি সকলকে আপন করে নেন। ছোটো বেলায় মাত্র ১৫ বছর বয়সে ওনার বাবা মারা যান। তাই আর এক বাবাকে তিনি খুব ভালোবাসতেন। কিন্তু বর্তমানে তাকেও হারিয়ে ফেলেন এই অভিনেত্রী। প্রচন্ড ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

কিছুদিন আগেই তার শ্বশুর মশাই শৌচাগারে মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়ায় ওনার মাথায় আঘাত লাগে। তিনি একটু সুস্থ হয়ে গেলেও মস্তিষ্কে চোট থেকেই যায়। সেটা আস্তে আস্তে বড়ো আকার ধারণ করে এবং শেষমেশ তার মৃত্যু ঘটে। কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শ্বশুর মশাইয়ের সঙ্গে ছবি পোস্ট করেন তিনি। তাতে তিনি লেখেন, “শ্বশুর মশাই আজ আমাদের ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন আমার আর বাবা বলে ডাকার কেউ রইলো না।”

কিছুদিন আগে পিতৃ দিবসে বাবার সঙ্গে তিনি পুরোনো ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘তখন তো এত ছবি তোলার চল ছিলনা। ছবি তোলা মানে একটা উৎসব। আর মধ্যবিত্তদের সবার বাড়িতে ক্যামেরা থাকতো না। এটা আমার পাঁচ বছরের জন্মদিনে তোলা ছবি। ১৫ বছরে বাবা না ফেরার দেশে চলে গেলো। আর আমায় আশীর্বাদ করে গেলো প্রত্যেক মুহুর্তকে সত্যি করে তুলে ধরার ছবির জগৎ’।

মৈনাক ভৌমিকের ছবি ‘চিনি’ তে শেষ অভিনয় করেছিলেন অপরাজিতা। এবার তিনি নতুন একটি ছবিতে অভিনয় করতে চলেছেন যার মুখ্য চরিত্রে থাকছেন তিনি নিজে,অলকানন্দা রায় ও সৌরসেনী মৈত্র। ছবির শুটিং কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হতে চলেছে। ছবির নাম ‘একান্নবর্তী, ৫১ নয় এক অন্ন’।

Back to top button