উত্তরপ্রদেশের এমন এক মন্দির যা কাউকে বানিয়ে দেয় রাজা, কাউকে এনে দেয় র‍্যাঙ্ক, আশীর্বাদ সরলেই চলে যায় সিট

বংট্রেন্ডি অনলাইন ডেস্ক: ভারতবর্ষের একটি ধর্মীয় রাজ্য হল উত্তর প্রদেশ। এখানে অনেক তীর্থস্থান রয়েছে । যেমন মথুরা, অযোধ্যা, বেনারস ইত্যাদি। এখানকার গোরক্ষপুর মঠ খুবই উল্লেখযোগ্য। জানা যায় এখানে যে যা প্রার্থনা করে তার সেই প্রার্থনাই সফল হয়। অনেকের জীবন পাল্টে দিয়েছে এই মঠ। কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা সম্পর্কে আলোচনা করা হল যারা এই মঠের পুজো দেওয়ার পরেই তাদের জীবনে আমূল পরিবর্তন এসেছে।

প্রাক্তন বিধায়ক ওম প্রকাশ পাসওয়ান এর প্রথম ভাগ্য খোলে এই মন্দিরের মাধ্যমে। রাজনৈতিক জীবনে যে এত উঁচু স্থানে তিনি থাকবেন তা তিনি ভাবেননি। 1989 সালে তিনি গোরক্ষপুর এর মহন্ত ও বৈদ্যনাথ এর কাছে যান। তিনি সেসময় ছিলেন মন্দিরের প্রধান ।এরপরে মনিরাম বিধানসভা থেকে ওম প্রকাশ পাসওয়ান কে প্রার্থী করা হয় এবং সেই ভোটে তিনি জিতে যান।

এরপরেই উত্তর প্রদেশের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এই মন্দিরের দায়িত্ব নেন। তার পরেই তিনি সর্বকনিষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার রেকর্ডটি গড়েন। এরপর বিজেপির ক্যাবিনেট মন্ত্রী শিবপ্রসাদ শুক্লার সাথে যোগী আদিত্যনাথ এর লড়াই শুরু হলে যোগী আদিত্যনাথ হিন্দু মহাসভার প্রার্থী হিসেবে ডক্টর রাধামোহন দাস আগরওয়াল কে প্রার্থী করেন।

কিন্তু তখন রাধামোহন দাসকে কেউ চিনত না। কিন্তু ভীষণ অস্বাভাবিক ভাবে কুড়ি হাজার ভোটে জিতে যান রাধামোহন দাস আগরওয়া।ল আবার 2007 সালের নির্বাচনেও বহু হিন্দু মহাসভার প্রার্থীরা জিতেছিলেন । এই সবকিছুর পেছনে ভাবা হয় গোরক্ষনাথ মন্দির এর কৃতিত্ব রয়েছে এবং যোগী আদিত্যনাথ এর কৃতিত্ব রয়েছে।

Back to top button