তৈরি হলো এমন ওষুধ, যা ৯৯.৯ শতাংশ করোনাকে করে দেবে ধ্বংস, দাবি বিজ্ঞানীদের

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মারাত্মকভাবে প্রভাব ফেলছে ভারতের উপর। এখনো পর্যন্ত প্রায় আড়াই কোটির বেশি মানুষ করোনাই আক্রান্ত হয়েছে। দেশে ২ লক্ষ ৭৮ হাজারেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে এই মা-র-ণ ভাইরাসের ফলে। গত কয়েক দিনের লকডাউনে আক্রান্তের সংখ্যা একটু কমলেও মৃ-ত্যু-র সংখ্যা দেখে হতবাক দেশবাসী সহ দেশের বিজ্ঞানীরাও। দেশে ৪৩২৯ জন মানুষ প্রাণ হারিয়েছে গত ২৪ ঘন্টায়, যেখানে ২৪ ঘন্টায় সংক্রমিত হয়েছে ২ লক্ষ ৬৩ হাজার মানুষ।

অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীদের দাবি তারা এমন একটি থেরাপি আবিষ্কার করেছে, যা মেরে ফেলতে পারে ৯৯.৯% করোনা পার্টিক্যালস। মৃত্যুহারও কমতে পারে এই থেরাপির ফলে, দাবি বিজ্ঞানীদের। তারা বলেছেন,” এই থেরাপি একটি মিসাইলের ন্যায়। প্রথমে টার্গেট ঠিক করে নিয়ে, সেই জায়গাকে পুরো ধ্বংস করে দেয়।”

এই গবেষণার সঙ্গে যুক্ত এক বিজ্ঞানী নাইজেল ম্যাকমিলান বলেন,” এই পদ্ধতির উপর কাজ করে আসছি গত বছরের এপ্রিল মাস থেকে। ভাইরাসকে ক্লোন তৈরি করা আটকা এই থেরাপি, যার ফলে আটকানো যেতে পারে মৃত্যুহার। “হিটসিকিং” মিসাইল এর মত কাজ করে এই থেরাপি। প্রথমে নিজের টার্গেট স্থির করে নিয়ে তাপের মাধ্যমে সেই জায়গা কে ধ্বংস করে দেয়।” তিনি আরও বলেন,” এই থেরাপির মাধ্যমে ফুসফুসে বাসা বাঁধা করোনা ভাইরাস কে খুঁজে নিয়ে সম্পূর্ণ ধ্বংস করা সম্ভব। 90 দশকে অস্ট্রেলিয়া দেশ শাসন সংক্রান্ত চিকিৎসায় ব্যবহৃত সাইলেন্ন্সিং থেরাপির অনুকরণে তৈরি থেরাপিটি।”

কি হবে এছাড়া গুলি কাজ করে তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি বলেন,” আরএনএর সঙ্গে কাজ করে এই অত্যাধুনিক টেকনোলজি,যা ভাইরাসের জিনের সঙ্গে যুক্ত হয় তার কাজকে বন্ধ করে ধ্বংস করে দেয়। রেমডেসিভির-এর মত ওষুধগুলি করোনা রোগীর আরোগ্যের সাহায্য করলেও এই থেরাপি করোনাভাইরাসকে মেরে ফেলতে সাহায্য করবে।”

তিনি আরো জানান,” পার্টিকেলের মাধ্যমে ইঞ্জেক্ট করে এই ওষুধটি রক্ত প্রবাহের সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়। তারপর সে ফুসফুসের মধ্যে আরএনএ তৈরি করা কোষের সঙ্গে যুক্ত হয়। এরপর ভাইরাসের জিনের সঙ্গে আরএনএর মাধ্যমে মিশে তাকে ধ্বংস করতে শুরু করে। এরফলেই আর ক্লোন তৈরি করতে পারে না ভাইরাস।”

Back to top button