ঝড়ের ভয়াবহ দাপটের আশঙ্কা পূর্ব মেদিনীপুরে, জারি রেড অ্যালার্ট

নিজস্ব প্রতিবেদন:  ঘূর্ণিঝড় যসের আছড়ে পড়ার আগে ইতিমধ্যেই মেঘলা আকাশ উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে। প্রবল জলোচ্ছ্বাসও দেখা যাচ্ছে সমুদ্রে। বুধবার দুপুরেই যশ আছড়ে পড়তে চলেছে ওড়িশার বালাসোর ও এ রাজ্যের দীঘার মধ্য়বর্তী উপকূলে। মঙ্গলবার ভোর ৪টে নাগাদ পারাদ্বীপ থেকে মাত্র ৩৬০ কিমি, বালাসোর থেকে ৪৬০ কিমি ও দীঘা থেকে ৪৫০ কিমি দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থান হবে যসের।

আগামী ১২ ঘণ্টায় আরও শক্তি সঞ্চয় করে আছড়ে পড়বে ইয়াস। পূর্ণিমা ও পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের জোড়াফলায় আরো শক্তিশালী হয়ে উঠছে ইয়াস। তবে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী স্থানে গুলিতে ঝড়ের দাপট বেশি হবে না বলেই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। তবে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা গুলিতে। পূর্ব মেদিনীপুরে ঝড়ের বেগ হতে পারে ঘণ্টায় প্রায় ১৪৫ কিমি। ইতিমধ্যেই সেখানে রেড অ্যালার্ট জারি করে দেওয়া হয়েছে। কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, দক্ষিণ ২৪ পরগনায়।

দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ঝড়ের বেগ হবে ঘণ্টায় প্রায় ৯০-১০০ কিমি। কলকাতা, হাওড়া, হুগলিতে ঝড়ের গতী থাকতে পারে ঘণ্টায় ৭০-৮০ কিমি। তবে, আমফানের মতো বেশি প্রভাব পড়বে না বলে মনে করা হচ্ছে এই রাজ্যে । বুধবার ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, কলকাতা, পূর্ব বর্ধমান, নদিয়া, পুরুলিয়া, মুর্শিদাবাদ, মালদা, কালিম্পং, দার্জিলিং জেলায় অতি ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।।

Back to top button